যশোরে লাভলীকে হত্যা, তৃতীয় লিঙ্গের দুইজনসহ আটক ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে তৃতীয় লিঙ্গের লাভলী হত্যার সাথে জড়িত চারজনকে আটক করা হয়েছে। এদের মধ্য দুইজন রয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের।

শনিবার (৮ জানুয়ারি) গভীর রাত থেকে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতদের মধ্যে দুইজন তৃতীয় লিঙ্গের রয়েছেন। তাদের কাছ থেকে হত্যাকাজে ব্যবহৃত অস্ত্রগুলি, বার্মিজ চাকু উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত হলেন, সদর উপজেলার দোগাছিয়া গ্রামের জিয়াউর রহমানের ছেলে শাকিল পারভেজ (২১), ঝাউদিয়া গ্রামের শাহাজুল বিশ্বাসের ছেলে মেহেদী হাসান (১৯), চাঁদপুর জেলার মতলব থানার কালিকাপুর গ্রামের বাসিন্দা বর্তমানে যশোর শহরের খোলাডাঙ্গা গাবতলা স্কুলের পিছনের ভাড়াটিয়া নাজমা ওরফে তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) নাজমা (৩৫) এবং খোলাডাঙ্গা গাবতলা স্কুলের পাশে সেলিম ওরফে তৃতীয় লিঙ্গ (হিজড়া) সেলিনা (৪৫)।

স্ত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে বন্ধুকে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

রবিবার (৯ জানুয়ারি) বিকালে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানানো হয়।

শনিবার যশোর-ছুটিপুরগামী পাকা রাস্তার উপর তৃতীয় লিঙ্গের লাভলীকে গুলি করে হত্যার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে এলোপাতাড়ি শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, শনিবার গভীর রাত থেকে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে তারা আটক হন। এসময় তাদের কাছ থেকে হত্যাকাজে ব্যবহৃত একটি বার্মিজ চাকু, একটি বিদেশী পিস্তল, পাঁচ রাউন্ড গুলি, একটি করাত কুড়াল, তিন রাউন্ড গুলির বুলেট ও দুইটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়।

পরে তারা স্বীকার করেছেন, হিজড়া সম্প্রদায়কে পরিচালনা করে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আকাঙ্খা, পূর্ব বিরোধের জের ও অন্যান্য আর্থিক লাভবানের জন্য তারা হিজড়া লাভলীকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। পরিকল্পনা অনুযায়ী শনিবার সকালে লাভলীর ইজিবাইককে গতিরোধ করে শাকিল পারভেজ ও মেহেদী হাসান তাকে গুলি করেন। কিন্তু গুলি মিস ফায়ার হলে শাকিলের হাতে থাকা বার্মিজ চাকু দিয়ে লাভলীর গলায় পোচ দিয়ে রক্তাক্ত করে মোটরসাইকেল যোগে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় কোতোয়ালি থানায় দুটি মামলা করা হয়েছে।

স্বাআলো/এসএ

.