সু চির আরো ৪ বছরের কারাদণ্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের গণতন্ত্র পন্থি নেত্রী অং সান সু চিকে আরো চার বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন দেশটির জান্তা সরকারের একটি আদালত।

অবৈধ ওয়াকিটকি রাখাসহ আরো বেশ কয়েকটি অভিযোগে এই কারাদণ্ড দেয়া হয়। খবর স্কাই নিউজের।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) জান্তা শাসিত দেশটির একটি আদালত এই রায় ঘোষণা করেন। জান্তা সরকারের করা সবগুলো মামলার রায় সু চির বিরুদ্ধে গেলে কয়েক দশক তাকে কারাগারে কাটাতে হতে পারে।

গত পহেলা ফেব্রুয়ারি সামরিক বাহিনী যখন অভ্যুত্থান ঘটিয়ে তার বাড়িতে তল্লাশি চালায় তখন অবৈধ ওয়াকি-টকি পাওয়ার অভিযোগ ওঠে।

সু চির বিরুদ্ধে এবার ভোট জালিয়াতির অভিযোগ

তবে যারা সু চির বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে কোনো ওয়ারেন্ট ছাড়াই প্রবেশ করে বলে জানা যায়। এই মামলার রায় ঘোষণা একাধিক বার পিছিয়ে সোমবার ধার্য করেন বিচারক।

এর আগে নির্বাচনী প্রচারণায় কোভিড নিয়ম লঙ্ঘন এবং সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে উসকানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় চার বছর সাজা প্রদান করে জান্তা আদালত।

জনগণকে অভ্যুত্থানের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে নামার আহ্বান সু চির

সোমবারের মামলার ঘোষণা ছাড়াও সু চির বিরুদ্ধে আরো কয়েকটি বিচার কাজ চলমান। এর মধ্যে সরকারি গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ গুরুতর।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারে অভ্যুত্থানের পর সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে এবং সুচির মুক্তির দাবিতে দেশজুড়ে আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। চলমান আন্দোলনে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে এ পর্যন্ত নিহত হয়েছেন প্রায় এক হাজার ৪০০ জন।

স্বাআলো/এস