শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা, অফিস চলবে অর্ধেক জনবলে

ঢাকা অফিস: করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে ২১ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত স্কুল, কলেজ ও সমপর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধসহ পাঁচ নির্দেশনা জারি করেছে সরকার।

সংক্রমণ ঠেকাতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের জারি করা নতুন বিধি-নিষেধ সম্বলিত এক প্রজ্ঞাপনে এই সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) সকালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের এক সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, অফিস আদালত অর্ধেক জনবল নিয়ে চালু থাকবে। পাশাপাশি যে কোনো সামাজিক, রাজনৈতিক বা ধর্মীয় অনুষ্ঠানে একশ জনের বেশি জনসমাগম করা যাবে না উল্লেখ করে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এসব অনুষ্ঠানে যারা অংশ নেবেন, তাদের বাধ্যতামূলকভাবে টিকা সনদ সাথে রাখতে হবে এবং আগের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে করা পিসিআর টেস্টের রিপোর্ট সাথে রাখতে হবে বলে জানানো হয়েছে।

করোনা সংক্রমণের কারণে ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হলে দীর্ঘ ১৮ মাস পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা লক্ষ্য করেছি স্কুলের সংক্রমণ হার বেড়ে যাচ্ছে। অনেক ছাত্র-ছাত্রীরা আক্রান্ত হচ্ছে এবং তারা ডাক্তারের কাছে যাচ্ছে চিকিৎসার জন্য। এটা আশঙ্কাজনক।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, দুই সপ্তাহ পরে পরিস্থিতি বুঝে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো জানান, বইমেলা, বানিজ্যমেলা, পর্যটন কেন্দ্র বিপিএলসহ সব জায়গায় টিকা সনদ দেখিয়ে প্রবেশ করতে হবে। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সরকারি, বেসরকারি অফিস এবং শিল্প কারখানায় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা সনদ নিতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।বাজার, শপিং মল, মসজিদ, বাস স্ট্যান্ড, লঞ্চঘাট, রেল স্টেশনসহ সাধারণ লোকসমাগমের স্থানে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে এবং যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে।

স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণ করতে বলা হয়েছে।

স্বাআলো/এস/এসএ