কুষ্টিয়ায় আত্মসাৎকৃত ৪৭০ বস্তা চালসহ গ্রেফতার ২

কুষ্টিয়া: জেলায় প্রায় এক মাস আগে আত্মসাৎকৃত ৪৭০ বস্তা বাসমতি চালসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কুষ্টিয়া পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশ সুপার খাইরুল আলম।

আটককৃতরা হলেন- সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী উপজেলার চর ছলিমাবাদ গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে মনিরুল ইসলাম (৪০) ও টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল উপজেলার গৌরীশ্বর গ্রামের হবিবরের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩২)।

প্রেস ব্রিফিংয়ে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার খাইরুল আলম জানান, দেশের বৃহত্তম চাউলের মোকাম কুষ্টিয়ার খাজানগর থেকে গত মাসের ৪ জানুয়ারি মেসার্স নুর অটো রাইচ মিল এর মালিক আমিরুল ইসলাম একটি কাভার্ড ভ্যানের মাধ্যমে ২৫ কেজি ওজনের ৪২০ বস্তা ও ৫০ কেজি ওজনের ৫০ বস্তা সর্বমোট ৪৭০ বস্তা বাসমতি চাল নারায়নগঞ্জ জেলার হাজী আহসান উল্লাহ সুপার মার্কেটর এজেন্সি মেসার্স মিতু রাইচের মালিক আলহাজ্ব মোক্তার হোসেনের কাছে পাঠান।

কুষ্টিয়ায় নদী ভাঙ্গন রোধে মানববন্ধন

কাভার্ড ভ্যানের চালক উক্ত স্থানে চাল জমা না দিয়ে মনিরুল ইসলাম ও আলমগীর হোসেনের সহযোগিতায় ৪৭০ বস্তা চাল আত্মসাতৎ করে। এ বিষয়ে মেসার্স নুর অটো রাইচ মিলের মালিক আমিরুল ইসলাম বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার তত্বাবধানে নবগঠিত সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সাহায্য একটি চৌকস দল দেশের বিভিন্ন জেলায় অভিযান চালিয়ে চাউলসহ আসামিদের আটক করতে সক্ষম হয়। প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফাসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরে একটি চক্র দেশের বৃহত্তম চাউলের মোকাম কুষ্টিয়ার খাজানগর থেকে বিভিন্ন জেলায় ডেলিভারি দিতে গিয়ে চাউল আত্মসাৎ করে আসছিলো।

স্বাআলো/এস

.

Author
জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া