দৌলতপুরে সন্ত্রাসী হামলায় যুব জোটের সম্পাদক সালাম নিহত

জাতীয় যুব জোট দৌলতপুর উপজেলার সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান সালাম (৩৮) সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছেন।

বুধবার (১১ মে) রাত দেড়টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত মাবুবব খান উপজেলার আমদহ বোডপাড়া গ্রামের আলাউদ্দিন খানের ছেলে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সুত্রে জানাযায়, বুধবার রাত ১১টার দিকে মাহবুব খান ভ্যানযোগে উপজেলার আল্লার দরগা বয়েন মোড়ে পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা তাকে ভ্যান থেকে জোর করে নামিয়ে রামদা দিয়ে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে থাকে। এ সময় মাহবুব খানের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাত দেড়টার দিকে মাহবুব খানের মৃত্যু হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, মাহবুব খান সালামের হাত-পায়ের রগ কেটে ফেলাসহ তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাবীদ হাসান, মাহবুব খানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করা হয়েছে। নতুন করে সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থল এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ের রাখা হয়েছে। হত্যার সাথে জড়িতদের ধরতে পুলিশি অভিযান চলছে। নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে বলেও জানায় ওসি। এ হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে দৌলতপুর উপজেলায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

এদিকে জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন ও সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন দৌলতপুর উপজেলা যুব জোটের সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান সালাম হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদের পাশপাশি হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানিয়েছেন।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া