সাতক্ষীরায় ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি চাইলেন শিক্ষক!

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কোদন্ডা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালী দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর কাছে আপত্তিকর ছবি চেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৭ মে) ওই স্কুলছাত্রী আশাশুনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানান, প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালীর কাছে তিনি প্রাইভেট পড়তেন। এ জন্য তিনি (শিক্ষক) প্রায় সময় ফোন করে তার লেখাপড়ার খোঁজ নিতেন। একপর্যায়ে ফেসবুক মেসেঞ্জারে তিনি আপত্তিজনক মেসেজ দিতে থাকেন এবং ভিডিও কলে ওই ছাত্রীর আপত্তিকর ছবিও দেখতে চান।

স্কুলছাত্রী আরো জানান, যখন তিনি একা থাকতেন তখন প্রধান শিক্ষক তার ওড়না ধরে টানাটানি করতেন। প্রথমে ভয়ে ঘটনাগুলো তিনি কাউকে জানাননি। পরে সহপাঠীদের জানালে তারা প্রতিবাদ করতে বলে। এ জন্য তিনি ঘটনা প্রকাশ করেছেন এবং থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। পাশাপাশি মেসেঞ্জারের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে দিয়েছে ওই স্কুলছাত্রী।

যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ইমাম গ্রেফতার

এ বিষয়ে কোদন্ডা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার বলেন, প্রধান শিক্ষক দুঃখী রামের ঘটনা শুনে আমরা সবাই হতভম্ব। আমরা তার সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি (দুঃখী রাম ঢালী) জানিয়েছেন- তার ফেসবুক হ্যাকড করে কেউ এটি করেছে।

আশাশুনি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান বলেন, অভিযোগটা শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আশাশুনি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ওই স্কুলছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। আমরা ঘটনা তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবো।

অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালীর সঙ্গে যোগযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

স্বাআলো/এস

.

Author
জেলা প্রতিনিধি, সাতক্ষীরা