চুয়াডাঙ্গায় সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি, ৫০ লাখ টাকা লুট

চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার সড়াবাড়ীয়া গ্রামের শালিকচড়া মাঠে গাছ ফেলে রাস্তা বন্ধ করে ঘণ্টাব্যাপী গণডাকাতির ঘটনায় নগদ ৩০ লক্ষ টাকা স্বর্ণালংকাসহ প্রায় ৫০ লাখ টাকা লুট হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) রাত ৯টার দিকে ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। এ সময় মুখ বাঁধা ১৪-১৫ জনের একটি ডাকাতদল প্রাইভেট কার, ব্যাটারী চালিত অটো, আলমসাধু, পাখিভ্যান, মোটরসাইকেল আরোহীদের আটকে তাদের গলায় রামদা ধরে মারপিট করে অন্তত ২০ জন মানুষের কাছ থেকে লুটপাট চালিয়ে নির্বিঘ্নে চলে যায়।
ডাকাতির ঘটনাস্থলে উপস্থিতি স্থানীয় লোকজন জানান, বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলায় শিয়ারমারী পশুহাট ছিলো। হাট উপলক্ষে অন্যান্য দিন পুলিশের টহল থাকলেও ঘটনার সময় টহল দল ছিলোনা। কি কারণে পুলিশ টহল বন্ধ ছিলো তা সন্দেহজনক।

আলমডাঙ্গা উপজেলার জোড়গাছা গ্রামের শহিদুল হকের ছেলে গরু ব্যবসায়ী আব্দুল হক আজাদ বলেন, শিয়ালমারী পশুহাট থেকে মোটরসাইকেল যোগে ফেরার সময় সড়াবাড়ীয়া মাঠের মধ্যে পৌঁছুলে তার কাছে থাকা ব্যাগে নগদ ১৪ লাখ টাকা রামদা দেখিয়ে ডাকাতরা ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়।

সড়াবাড়ীয়া গ্রামের সুপার ইটভাটার মালিক আব্দুল ওহেদ জানান, তিনি প্রাইভেট কার যোগে বাড়িতে ফেরার ডাকাতদল গতিরোধ করে তার কাছে থাকা নগদ ৯ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঝিনাইদহ জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ সাহা মিথুন বলেন, তিনিসহ ঝিনাইদহের সেনেটারী ব্যবসায়ী মিলন, রনি সাহা ও ঠিকাদার এম.এম. এন্টারপ্রাইজ মালিক রাজু চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলা শহর থেকে প্রাইভেট কার যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় সড়াবাড়িয়ার শালিকচরা মাঠ নামে স্থানে পৌঁছুলে তাদেরকে গতিরোধ করে ডাকাতদল ধরালো অস্ত্র দেখিয়ে তাদের কাছে থাকা নগদ ৫২ হাজার টাকা, ২টি স্বর্ণের চেইন, ৫টি স্বর্ণের আংটি ও ১টি স্বর্ণের ব্রেসলেট লুট করে চলে যায়।

এছাড়াও গড়াইটুপি গ্রামের খোকনের কাছ থেকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা, তেঘরী গ্রামের তৈমুরের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা, সড়াবাড়ীয়া গ্রামের বিশারত ও মন্টুর কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা, সুজায়েতপুর গ্রামের গ্রাম্য চিকিৎসক মিলন হোসেনের কাছ থেকে দুই হাজার টাকা, বাটিকাডাঙ্গা গ্রামের শ্যামল ও কামাল কাছ থেকে দুই হাজার টাকা লুট করে ডাকাতদল। পরে স্থানীয়রা মাঠের মধ্য থেকে একটি মালিকবিহীন পাখিভ্যান উদ্ধার করে।

ডাকাতির খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন চুয়াডাঙ্গার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু তারেক (প্রশাসন) ও দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ লুৎফুল কবীর।

এ বিষয়ে দর্শনা থানার অফিসার ইনচার্জ লুৎফুল কবির বলেন, রাস্তায় গাছ ফেলে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদের আটক করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
মফিজুর রহমান জোয়ার্দ্দার, চুয়াডাঙ্গা
জেলা প্রতিনিধি