যশোরে যুবককে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত, আটক ২

যশোরে সন্দিপ কুমার নান্টু (২৫) নামে এক যুবককে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত ঘটনায় সাব্বির হাসান মিলন (১৯) ও ইমরান খান (২০) নামে দুই দূর্বৃত্তকে আটক করেছে পুলিশ।

কোতয়ালী থানার এসআই আ ফ ব মনিরুজ্জামান শনিবার (২ জুলাই) ভোর রাতে শহরের ষষ্টিতলা এলাকা থেকে তাদের আটক করেন। ছুরিকাহত নান্টু এখন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সন্নিকটে। সে যশোর শহরের মুজিব সড়ক ষষ্টিতলার দিপক কুমার দে এর ছেলে। আটক ইমরান খান ষষ্টিতলার পাড়ার বাচ্চু খানের ছেলে এবং সাব্বির হাসান মিলন একই এলাকার সাত্তারের ছেলে।

আহতের বাবা দিপক কুমার অভিযোগ করে জানান, শুক্রবার রাত ১১টার দিকে ছেলে দিপক মোটরসাইকেল নিয়ে বাসা থেকে বের হয় সিঙ্গারা কিনতে। এ সময় পূর্বশত্রুতায় একই এলাকার ইমরান ও সাব্বিরসহ বেশ কয়েকজন নান্টুর বুকে, পেটে ও পিঠে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। আমরা নান্টুকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাই। তার অবস্থা খুবই আশঙ্কা হওয়ায় ডাক্তর খুলনায় রেফার করেন। নান্টুকে এখন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। নাটুর অবস্থা খুবই খারাপ সে মৃত্যুর সন্নিকটে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডাক্তার আহম্মেদ তারেক শামস বলেন, রোগীর অবস্থা খুবই খারাপ হওয়ায় নান্টুকে এখান থেকে চিকিৎসা সেবা দিয়ে তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

কোতয়ালী থানার পুলিশ পরিদর্শক ( তদন্ত) মনিরুজ্জামান বলেন, সন্দিপ কুমার নান্টুকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় ইমরান ও সাব্বিরকে আটক করা হয়েছে। যে ছুরি দিয়ে তাকে আঘাত করা হয়েছে সেই বার্মিজ ছুরিটিকেও উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিয়মিত মামালা হয়েছে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর