বিশ্ববাজারে ৬ মাসের মধ্যে জ্বালানি তেলের দাম সর্বনিম্ন

বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমেছে। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দর হ্রাস পেয়ে গত সপ্তাহ শেষ হয়েছে। প্রতি ব্যারেলের মূল্য নেমেছে ৮৯ ডলারে। যা গত ছয় মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন।

ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর ঊর্ধ্বমুখী হচ্ছিলো তেলের দাম।

গত এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহেই তেল নিয়ে সংকট প্রকট হতে শুরু করেছিলো। এবার গত ছয় মাসের মধ্যে এতো নিম্নমুখী হলো তেলের দাম।

বর্তমানে মন্থর বিশ্ব অর্থনীতি নিয়ে উদ্বিগ্ন বিনিয়োগকারীরা। এরই মধ্যে শিল্প কার্যক্রম কমে যাওয়ায় বিশ্বব্যাপী জ্বালানি পণ্যটির চাহিদা কমেছে। ফলে তেলের মূল্যও কমেছে।

মাত্র দুই মাস আগেও ব্যারেল প্রতি তেলের দাম ছিলো ১২০ ডলারের ওপরে। ধীরে ধীরে জ্বালানি পণ্যটির মূল্য কমছে। সাম্প্রতিক সময়ে তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোতে উৎপাদন বেড়েছে। বিশ্বজুড়ে তেলের চাহিদাও কমেছে। এ ছাড়া সময় যতো গড়াচ্ছে, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার শঙ্কা ততো বাড়ছে। এতে তেলের দর কমছে।

বৃহস্পতিবার ইউএস বেঞ্চমার্ক ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডাব্লিউটিআই) তেলের দাম ব্যারেল প্রতি ৮৯ ডলারের নিচে নেমে যায়। গত মার্চে যার দর উঠেছিলো ১২৪ ডলারে। তার চেয়ে যা ২৯ শতাংশ কম। আন্তর্জাতিক বেঞ্চমার্ক ব্রেন্ট ক্রুড প্রতি ব্যারেল বিক্রি হয় ৯৪ ডলারে।

এডওয়ার্ড জোন্সের জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ফয়সাল এ হারসি বলেন, বিশ্ববাজারে তেলের দরপতনের অন্যতম কারণ এখন বিনিয়োগকারীদের দৃষ্টি বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার দিকে। তারা দেখছেন উদ্ভূত কঠিন পরিস্থিতি কিভাবে গোটা বিশ্বের জ্বালানির চাহিদাকে প্রভাবিত করে।

এদিকে লিবিয়া থেকেও সরবরাহ বেড়েছে। ফলে অস্থিরতা কিছুটা কমে যাওয়ার ব্যাপারে মতো দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। সূত্র: ব্লুমবার্গ

স্বাআলো/এস/এসপি

.

Author
আন্তর্জাতিক ডেস্ক