ঝিকরগাছায় কাউন্সিলর খোকনকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

যশোরের ঝিকরগাছায় মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড উন্নয়ন কমিটি। বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) বিকেলে পৌর কাউন্সিলরের ব্যক্তিগত কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, কীর্তিপুরের মৃত আমজাদ হোসেনের ছেলে চিহ্নিত স্বার্থান্বেষী, মামলা-হামলাবাজ আমিনুর রহমান শহীদ শেখ রাসেল স্মৃতি সড়কে পৌরসভার পানির পাইপ লাইনের ওপর অবৈধভাবে বাড়ির প্রাচীর নির্মাণ করেছেন।

তিনি আরো বলেন, উন্নয়নের স্বার্থে আমরা এলাকাবাসী পৌরমেয়র বরাবর অভিযোগ করলে গত ২৯ জুলাই আমিনুরের বাড়ির সামনে রাস্তা থেকে মাটি অপসারণের জন্য স্কেভেটর দিয়ে মাটির স্তুপ অপসারণের ব্যবস্থা নেয়। এ সময় আমিনুর রহমানসহ তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা স্কেভেটরের চালকের ওপর অতর্কিত হামলা চালান এবং স্কেভেটর ভাঙচুর করেন।

আনোয়ার বলেন, সরকারি কাজে বাধা সৃষ্টি করায় পৌরসভার নির্দেশে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর একরামুল হক খোকন বাদী হয়ে আমিনুর রহমান, তার ছেলে মামুন (২৮), ভাই মিজানুর রহমান (৫২), আনিছুর রহমান আশানুর (৫০), স্ত্রী মর্জিনা বেগম (৪৭), ও মেয়ে প্রমিচকে (২২) আসামি করে ঝিকরগাছা থানায় মামলা দায়ের করেন। এতে ক্ষিপ্ত হন আমিনুর। পরে এ ঘটনাকে মারামারি উল্লেখ করে কাউন্সিলর খোকনকে প্রধান আসামি করে আদালতে মিথ্যা মামলা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অ্যাড. এমদাদুল হক দুলু, ওয়ার্ড উন্নয়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, সহ-সভাপতি আকবার আলী, সিরাজুল ইসলাম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আসমত আলীসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এদিকে আমিনুরের মামলায় সাক্ষী হিসেবে নাম দেয়া হয়েছে সিদ্দিক হোসেনের ছেলে সেলিম হোসেন ও এনায়েতুল্লাহর ছেলে হাফিজুর রহমানের। তবে সয়ং আমিনুরের বিরুদ্ধেই জিডি করেছেন ওই দুইজন। কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মিথ্যা সাক্ষী না দিলে তাদেরকেও মামলায় ফাঁসানো হবে বলে জিডিতে উল্লেখ করেছেন তারা।

স্বাআলো/এস

.

Author
রেজওয়ান বাপ্পী, ঝিকরগাছা (যশোর)