করোনাভাইরাস: নতুন করে বিধি-নিষেধ দেয়ার বিষয়ে যা বললেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে ঊর্ধ্বগতি দেখা দিলেও সংক্রমণরোখে নতুন করে বিধি-নিষেধ দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

তিনি মনে করছেন, যারা এখনো ভ্যাকসিন নেননি তারা ভ্যাকসিন নিলে এবং জনসাধারণ মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করলে সংক্রমণ রোধ করা সম্ভব।

শুক্রবার (১৫ জুলাই) সন্ধ্যায় মেহেরপুর সদরের হরিরামপুর গ্রামে সমবায় অধিদফতরের উদ্যোগে গাভী পালন কর্মসূচি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনার সংক্রমণ বাড়ছে ও কমছে। তবে এর মধ্যে আমরা ব্যাপকভাবে সবাইকে করোনার ভ্যাকসিন দিতে পেরেছি। এর সুফল সবাই পাচ্ছে। এখন অনেকে করোনায় আক্রান্ত হলেও টের পাচ্ছেন না। সবাইকে হাসপাতালেও যেতে হচ্ছে না। করোনায় মৃত্যুও কমেছে।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন আরো বলেন, ভ্যাকসিন নেয়ার কারণে এখন আর আগের মতো সমস্যায় পড়তে হবে না। তবে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানলে এবং মাস্ক পরলে আমরা যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে পারব। তবে এখনো যারা ভ্যাকসিন নেননি, তাদের ভ্যাকসিন নিতে হবে।

হরিরামপুর গ্রামে জেলা সমবায় অধিদফতরের উদ্যোগে দুধ ও মাংস উৎপাদনের মাধ্যমে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে গাভী পালনের প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। সন্ধ্যা ৭টার দিকে প্রকল্পের কার্যক্রম দেখতে যান প্রতিমন্ত্রী।

এসময় প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান ও জেলা সমবায় অফিসার প্রভাস চন্দ্র বালা। এর আগে সদর উপজেলায় ৪০০ উপকারভোগী পরিবাররের প্রতিটিকে গাভী পালনের জন্য এক লাখ পাঁচ হাজার টাকা করে বিতরণ করা হয়।

স্বাআলো/এসএ