ইউপি সদস্যের ফেনসিডিলসহ যুবক গ্রেফতার

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় ৪৫ বোতল ফেনসিডিলসহ সুদান চন্দ্র রায় (৩২) নামের এক যুবককে আটক করেছে বিজিবি। এ সময় একটি আরটিআর টিভিএস এ্যাপাসি মোটরসাইকেলও জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ওই ফেনসিডিলগুলো ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য সুজনের বলে জানান সুদান চন্দ্র।

এ ঘটনায় আটককৃত সুদন, ইউপি সদস্য সুজন ও লিমনসহ তিনজনের নামে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বিজিবি।

মঙ্গলবার দুপুরে আটকৃতকে হাতীবান্ধা থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন বিজিবি। এর আগে গত সোমবার রাতে উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের জাওরানী বাজার এলাকা থেকে তাকে আটকে জাওরানী বিজিবি ক্যাম্পের টহলদল।

আটককৃত সুদান চন্দ্র রায়, পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ উপজেলার লতাবর এলাকার মৃত পেড্ডু বর্মনের ছেলে।

এই মামলার অপর দুইজন অভিযুক্ত হলেন, হাতীবান্ধা উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য সুজন ও কালীগঞ্জ উপজেলার লতাবর এলাকার রশীদ মিয়ার ছেলে লিমন (২৭)।

জানা গেছে, গত সোমবার রাতে উপজেলার ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের জাওরানী বাজার এলাকা থেকে ৪৫ বোতল ফেনসিডিরসহ সুদান চন্দ্রকে আটক করেছে বিজিবি। কিন্তু তার সাথে থাকা অপর ব্যক্তি লিমন পালিয়ে যায়।

এ সময় সুদান চন্দ্র উপস্থিত স্থানীয় লোকজন, বিজিবি ও ইউপি চেয়ারম্যানকে জানায়, ভেলাগুড়ি ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য সুজন তাকে ওই ফেনসিডিলগুলো দেয়। আমি ও পলাতক লিমনসহ মোটরসাইকেল যোগে করে ফেনসিডিলগুলো চাপারহাট নিয়ে যাচ্ছিলাম।

এ দিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- মাদক, চোরাচালান, গরু, নারী শিশু পাচারসহ সীমান্তে এমন কোনো অপরাধ নেই যে এই সুজন মেম্বার করে না। সীমান্তে তার ক্যাডার বাহিনী রয়েছে। তাদের মাধ্যমে এই মেম্বার সব ধরণের অপকর্ম করে থাকে।

এ বিষয়ে ভেলাগুড়ি ইউপির ৭ নং ওয়ার্ড সদস্য সুজন বলেন, সুদান যেটা বলেছে সেটা মিথ্যা। আমাকে এখানে শুধু শুধু জড়ানো হচ্ছে। আমার নামে আগে দুইটা মাদক মামলা ছিলো। তবে মেম্বার হওয়ার পর আমার নামে কোনো মামলা হয়নি।

এ বিষয়ে ভেলাগুড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম মণ্ডল বলেন, আটককৃত সুদানের সাথে কথা বলে জানতে পারি উদ্ধারকৃত মাদকগুলো সুজন মেম্বারের। সে একজন মাদক ব্যবসায়ী। এরআগেও তার নামে থানায় মাদক মামলাও রয়েছে। মাদকের সাথে জড়িতদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ওসি শাহা আলম বলেন, ৪৫ বোতল ফেনসিডিলসহ আটককৃত সুদান চন্দ্রকে থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে বিজিবি। এছাড়া এ ঘটনায় আটককৃত সুদান, সুজন ও লিমনসহ তিনজনের নামে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন বিজিবি।

বুধবার সকালে আটককৃতকে লালমনিরহাট আদালতে তোলা হবে। আর পালাতক আসামিদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

স্বাআলো/এস

.

Author
জেলা প্রতিনিধি, লালমনিরহাট