যশোর বোর্ডে নতুন এমপিওভুক্ত হওয়া ৯ স্কুলে পুনরায় তদন্ত

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এমপিও কমিটির আপিল বিভাগ থেকে যশোর শিক্ষা বোর্ডের নয়টি নতুন এমপিওভুক্ত স্কুলের পুনরায় তদন্ত করছে। তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে শিক্ষাবোর্ডকে। তদন্ত প্রতিবেদনে তথ্য উপাত্ত জালিয়াতের প্রমাণ মিললেই এমপিও বাতিল করে দেয়া হবে।

শিক্ষাবোর্ড সূত্রে জানা গেছে, যশোর শিক্ষাবোর্ডের আওতাভুক্ত নতুন করে এমপিওভুক্ত হওয়া ৯টি মাধ্যমিক ও নিম্নমাধ্যমিক স্কুলের তথ্য উপাত্ত পুনরায় যাচাই-বাছাই চলছে। শিক্ষা মন্ত্রণলায়ের এমপিও কমিটির আপিল বিভাগ থেকে যাচাই-বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। যার তদন্তভার দেয়া হয়েছে যশোর শিক্ষাবোর্ডের ওপর।

ওই নয়টি নতুন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে, যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার সিলিমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, যশোর সদর উপজেলার মালঞ্চি নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়, মণিরামপুর উপজেলার ঝালঝাড়া খৈদ্দগ্যাংড়া নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়, কুষ্টিয়া কুমারখালী ভিসিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মিরপুর কুৎসা এমপি আই নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়, মেহেরপুরের গ্যাংনী হাড়িয়াদাহ মহিশাখোলা নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয়, মুজিবনগর এটিজে আর্দশ বালিকা বিদ্যালয়, গ্যাংনী এস কে আর এস মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ঝিনাইদহের শৈলকুপা বরিয়া মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়।

যশোর শিক্ষাবোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক ড. বিশ্বাস শাহীন আহমেদ জানান, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এমপিও কমিটির আপিল বিভাগ থেকে ৯টি প্রতিষ্ঠানের তদন্তের তিনি পেয়েছেন। যেসব তথ্য সংগ্রহের কথা বলা হয়েছে সেগুলো যাচাই-বাছাই করে প্রতিবেদন দেয়া হবে। প্রাথমিকভাবে কিছু তথ্য মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। তথ্য উপাত্ত সঠিক থাকলে কারো এমপিও বাতিল হবে না। তথ্য জালিয়াতির প্রমাণ মিললে এমপিও তালিকা থেকে বাদ দেয়া হবে।

স্বাআলো/এস

.

Author
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর