ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের নতুন সভাপতি শিরিনা খাতুন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে নতুন সভাপতি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন সহকারী অধ্যাপক শিরিনা খাতুন। আগামী ৩ বছর তিনি এই পদে দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি বিভাগের সদ্যবিদায়ী সভাপতি সহকারী অধ্যাপক ফিরোজ আল মামুনের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন।

শনিবার (০৬ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

বিজ্ঞপ্তি সূত্রে, গত ৫ আগস্ট ফিরোজ আল মামুনের সভাপতির মেয়াদ শেষ হয়। পরে ৬ আগস্ট শিরিনা খাতুনকে সভাপতি হিসেবে নিয়োগ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। একইসাথে বিদায়ী সভাপতিকে দীর্ঘদিন একান্ত নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করায় ধন্যবাদ জানায় কর্তৃপক্ষ।

শিরিনা খাতুন বলেন, সেশনজটমুক্ত বিভাগ হিসেবে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ ইতোমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ে সকলের নিকট প্রশংসিত হয়েছে। আমি এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে চাই। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

উল্লেখ্য, সহকারী অধ্যাপক শিরিনা খাতুন বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সৃজনশীল কাজ করে আসছেন। টেলিভিশন উপস্থাপনা, সংবাদ পাঠ, কবিতা আবৃত্তি, নাট্যশিল্প, রাজনীতিসহ সর্বক্ষেত্রেই তার অবাধ পদচারণা। তিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘রাষ্ট্রনীতি ও লোকপ্রশাসন’ বিভাগ থেকে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও এম. ফিল ডিগ্রি অর্জন করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন তিনি ২০০৩ সালে জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে কবিতা আবৃত্তিতে স্বর্ণপদক অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৪ সাল থেকে তিনি বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনে তালিকাভুক্ত শিল্পী হিসেবে আবৃত্তি, উপস্থাপনা, সংবাদ পাঠ ও নাট্যশিল্প অঙ্গনে কাজ করে চলেছেন। একইসাথে তিনি বাংলাদেশের বিভিন্ন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে নিয়মিত উপস্থাপনা করেন। এছাড়াও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগদানের পূর্বে তিনি সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘রাজনীতি ও প্রশাসন’ বিভাগে দীর্ঘদিন শিক্ষকতা করেছেন।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
মোর্শেদ মামুন, ইবি প্রতিনিধি