উত্তাল খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, হলের তালা ভেঙে ছাত্রীদের বিক্ষোভ

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) আবাসিক হলের কক্ষ থেকে রাইস কুকার, হিটার ও রান্নার সরঞ্জাম সরানোর নোটিশ দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করছেন ছাত্রীরা।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজিতা হলের ছাত্রীরা তালা ভেঙে বেরিয়ে পড়েন। তারা হলের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন নেছা মুজিব হলের ছাত্রীরাও।

এ সময় প্রাধ্যক্ষের বাজে আচরণ ও হুমকিরও প্রতিবাদ জানিয়ে ছাত্রীরা স্লোগান দিতে থাকেন, হল আমাদের অধিকার, সুযোগ নয়, প্রভোস্ট কই, প্রভোস্ট কই, প্রভোস্টকে আসতে হবে।

জানা যায়, বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে হলের প্রোভোস্ট, সহকারী প্রোভোস্ট ছাত্রীদের ধমক দেন ও সিট বাতিলের হুমকি দেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মঙ্গলবার আইন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার তরকারি কাটার বটি দিয়ে নিজের গলা কাটার চেষ্টা করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বেঁচে যান তিনি।

এই ঘটনার পর ছাত্রীদের রান্না করার সরঞ্জাম জব্দ করার নিদের্শ দেয় হল কর্তৃপক্ষ। নির্দেশনায় বলা হয়, ইলেকট্রনিক ডিভাইস, রাইস কুকার, হিটারসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম না সরালে, যার রুমে এগুলো পাওয়া যাবে তার সিট বাতিল হয়ে যাবে।

রান্নার সরঞ্জাম জব্দের নোটিশের বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক শরীফ হাসান লিমন বলেন, যেহেতু একটি আত্মহত্যার চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে, তার পরিপ্রেক্ষিতে হল কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু তিনি হয়তো শিক্ষার্থীদের সেন্টিমেন্ট বুঝতে পারেননি। আশাকরি, প্রাধ্যক্ষ আসলে সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
খুলনা ব্যুরো