জিম্বাবুয়েতে হামের প্রাদুর্ভাব, প্রাণ গেলো ১৫৭ শিশুর

জিম্বাবুয়েতে হামের প্রাদুর্ভাবে ১৫৭ শিশুর মৃত্যু হয়েছে এবং এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে মৃতের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়ে গেছে বলে দেশটির তথ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সরকার গত সপ্তাহে অ্যাপস্টোলিক গির্জা সম্প্রদায়কে দায়ী করে বলেছিলো, যারা টিকা নেয়নি হাম তাদের মধ্যেই ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির তথ্যমন্ত্রী মোনিকা মোদিঙ্গুয়া জানান, দেশব্যাপী মোট সন্দেহভাজন আক্রান্তের সংখ্যা চার দিনে ১০৩৬ থেকে লাফিয়ে ২০৫৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

আক্রান্তদের অধিকাংশ শিশু যাদের বয়স ছয় মাস থেকে ১৫ বছর এবং তারা একটি ধর্মীয় সম্প্রদায়ের সদস্য যারা টিকায় বিশ্বাস করে না।

তথ্যমন্ত্রী মনিকা বলেন, এটা লক্ষ্য করা গেছে আক্রান্তদের অধিকাংশই হামের বিরুদ্ধে সুরক্ষার টিকা নেননি। এই জরুরি পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য সরকার সিভিল প্রোটেকশন ইউনিট অ্যাক্ট কার্যকরের আহবান জানিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সেপ্টেম্বরে স্কুল খোলার আগে টিকাদান কর্মসূচি জোরদার করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এই ব্যাপারে সহযোগিতার জন্য সরকার ঐতিহ্যবাহী গোষ্ঠী এবং ধর্মীয় নেতাদের সমর্থন পেতে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।

ওষুধের ঘাটতি এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের ধর্মঘটের কারণে দেশটির স্বাস্থ্য খাত অনেকদিন ধরেই ভুগছে। এখন হামের এই প্রাদুর্ভাব দেশটির স্বাস্থ্য খাতের ওপর মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দেখা দেবে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
আন্তর্জাতিক ডেস্ক