বাগেরহাটে কলেজছাত্রীর আত্মহত্যা

বাগেরহাট জেলা সদরের ষাট গম্বুজ বারাকপুর চুনাখোলা এলাকায় কেয়া রানী দাস (২২) নামের একজন কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে সবার অজান্তে সে ঘরের আড়ার সাথে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে।

কেয়া রানী দাস চুনাখোলা গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জয়দেব দাসের মেয়ে।

খবর পেয়ে বাগেরহাট সদর মডেল থানা পুলিশ কলেজছাত্রীর মরদেহের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

সংশ্লিষ্ট ষাট গম্বুজ ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আক্তারুজ্জামান বাচ্চু বলেন, কেয়া রানী দাস অনার্সের ছাত্রী ছিলো। সম্প্রতি পারিবারিকভাবে তার বিবাহের প্রস্তুতি ছিলো। এমতাবস্থায় সে কেনো আত্মহত্যার পথ বেছে নিলো তা জানা যায়নি।

বাগেরহাট সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শন (অপারেশন) শিমুল বলেন, আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি। তবে আমরা মরদেহের সুরতহাল করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছি। এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

স্বাআলো/এস

.

Author
আজাদুল হক, বাগেরহাট
জেলা প্রতিনিধি