চুয়াডাঙ্গা সদর ও জীবননগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন

‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশ পেতাম না। আর যাদের রক্তের বিনিময়ে দেশ স্বাধীন হয়েছিলো তারা হলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা। সরকার তাদের কথা চিন্তা করে চুয়াডাঙ্গা শহরে তিন তলা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ করেছে।’

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টায় চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধনকালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক
এ কথা বলেন।

উদ্বোধন উপলক্ষে জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলী আজগার টগর, পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ্ আল-মামুন, পৌরসভার মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মালিক খোকন, চুয়াডাঙ্গা
চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটন ও সাবেক মুক্তিযোদ্ধা জেলা কমান্ডার নুরুল ইসলাম মালিক এবং আবু হোসেন।

মন্ত্রী একই সময় জেলার জীবননগর উপজেলায় তিন তলা বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভার্চুয়ালী উদ্বোধন করেন। ওই সময় জীবননগরে উপস্থিত ছিলেন জীবননগর উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জীবননগর উপজেলা সভাপতি উপাধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক আবু আব্দুল লতিফ অমল ও বীরমুক্তিযোদ্ধাগণ।

১ কোটি ৭৭ লাখ টাকা ব্যয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন ও ১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা ব্যয়ে জীবননগর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ করা হয়। এ কাজ বাস্তবায়ন করেছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
মফিজুর রহমান জোয়ার্দ্দার, চুয়াডাঙ্গা
জেলা প্রতিনিধি