পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: নদীতে ভেসে উঠছে একের পর এক লাশ

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় করোতোয়া নদীতে নৌকাডুবিতে আরো সাতজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২ জনে দাঁড়ালো।

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় বোদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুজয় কুমার রায়, দেবীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার সোহেল রানা, ও খানসামা থানার ওসি চিত্তরঞ্জন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে একই দিন সকালে বোদায় দুইজনের, দেবীগঞ্জ উপজেলায় দুইজনের ও পাশের জেলা দিনাজপুরের খানসামা উপজেলা থেকে একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: নিহত বেড়ে ২৯, নিখোঁজ ৬৫

মৃতরা হলেন লক্ষী রানী (২৫), অমল চন্দ্র (৩৫), শ্যামলী রানী (১৪), দীপঙ্কর (৩), পিয়ন্ত (২.৫), রুপালী ওরফে খুকি রানী (৩৫), প্রমিলা রানী (৫৫), ধনবালা (৬০), সুনিতা রানী (৬০), ফাল্গুনী (৪৫), প্রমিলা দেবী (৭০), জ্যোতিশ চন্দ্র (৫৫), শোভা রানী (২৭), তারা রানী (২৫), সনেকা রানী (৬০), সফলতা রানী (৪০), হাশেম আলী (৭০), বিলাস চন্দ্র (৪৫), শ্যামলী রানী ওরফে শিমুলি (৩৫), উষশী (৮), তনুশ্রী (৫), শ্রেয়শী, প্রিয়ন্তী (৮), ব্রজেন্দ্রনাথ (৫৫), সনেকা রানী (৬০)। তবে তিনজনের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, রবিবার বিকেলে মহালয়া উপলক্ষে পাঁচপীর, বোদা, মাড়েয়া, ব্যাঙহারি এসব এলাকার সনাতন ধর্মাবলম্বীরা নৌকায় করে বদেশ্বরী মন্দিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় নৌকায় অতিরিক্ত যাত্রী ছিলো। এ কারণে মাঝ নদীতে পৌঁছানোর পর যাত্রীর চাপে নৌকা ডুবে যায়। এ সময় কিছু মানুষ সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বেশির ভাগ যাত্রীই এখনো নিখোঁজ রয়েছেন। তবে একই দিনই ২৫ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নৌকাডুবি: নিহত ২৪ জনের পরিচয় মিলেছে

এ বিষয়ে পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিসের উপ পরিচালক সৈয়দ মাহাবুবু আলম জানান, পঞ্চগড় রংপুর কুড়িগ্রাম ও রাজশাহী থেকে তিনটি ডুবুরি দল সকাল থেকে উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। ঘটনাস্থল থেকে ভাটি অংশের ২৫ থেকে ৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত অভিযান চালানো হবে।

স্বাআলো/এস

.

Author
হারুন উর রশিদ সোহেল, রংপুর
ব্যুরো প্রধান