শেষবারের মতো টিকা নেয়ার সুযোগ দিলো সরকার

ফাইল ছবি

বার বার তাগাদা, বিশেষ ক্যাম্পেইন করার পরও অনেক মানুষ টিকাদানে খুব একটা সাড়া দিচ্ছেন না। এখনো কয়েক কোটি মানুষ টিকার বাইরে রয়েছেন। এ অবস্থায় দেশে মজুত প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকার মেয়াদ আগামী মাসেই শেষ হয়ে যাচ্ছে।

সরকারের তথ্য বলছে, এখনো পর্যন্ত প্রায় ৩০ কোটি ডোজ টিকা দেয়া হয়েছে। দেশের ৮০ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হলেও কয়েক কোটি মানুষ এখনো টিকার বাইরে। তাই আগামীকাল বুধবার সারাদেশে শেষবারের মতো সপ্তাহব্যাপী গণটিকা ক্যাম্পেইন শুরু করছে সরকারের স্বাস্থ্য অধিদফতর।২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত গণটিকা ক্যাম্পেইন চলবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, দেশের অধিকাংশ মানুষ টিকা নিলেও এখনো কোটিরও বেশি মানুষ প্রথম ডোজের পাশাপাশি দ্বিতীয় ডোজ নেননি। তাদের জন্য যে টিকার মজুত রয়েছে- তার কার্যকারিতা আগামী অক্টোবরে শেষ। তাই শেষবারের মতো সুযোগ দিতেই এই ক্যাম্পেইন শুরু করা হচ্ছে।

সরকারের টিকাদান কর্মসূচির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক গণমাধ্যমকে বলেন, শেষবারের মতো টিকার বাইরে থাকাদের সুযোগ দেয়া হচ্ছে।তারপরও না নিলে সেই দায় রাষ্ট্রের নয়, ব্যক্তির।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশে ২৯ কোটি ৮৬ লাখ ২৪ হাজার ডোজ টিকা দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে প্রথম ডোজ নিয়েছেন ৭৯ দশমিক ৪৯ শতাংশ, দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৭৩ দশমিক ৭২ শতাংশ এবং বুস্টার ডোজ নিয়েছেন মাত্র ২৭ শতাংশ মানুষ।

গত ২৬ জুলাই ডা. শামসুল হক বলেছিলেন, মজুত থাকা প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের টিকার মেয়াদ নভেম্বরের প্রথমেই শেষ হবে। তাই এই সময়ের পর আর এসব টিকা দেয়া হবে না।

তার ওই ঘোষণার পর দুই দফায় গণটিকা ক্যাম্পেইন করলেও প্রত্যাশিত সাড়া পাওয়া যায়নি। এ অবস্থায় শেষবারের ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত আরো একটি ক্যাম্পেইনের সিদ্ধান্ত নেয়া হলো।

স্বাআলো/এস

.

Author
ঢাকা অফিস