ইঞ্জিনে পাখি, চট্টগ্রাম থেকে ফ্লাই দুবাই ও বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট বাতিল

ইঞ্জিনে পাখি ঢোকায় চট্টগ্রাম থেকে দুবাইগামী এবং মাস্কাটগামী দুইটি ফ্লাইট বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ।

চট্টগ্রাম থেকে দুবাইগামী ১৮০ জন যাত্রী নিয়ে ফ্লাই দুবাই এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইট এবং ২৫৪ জন যাত্রীসহ মাস্কাটগামী বাংলাদেশ বিমানের বিজি ১২১ এর ফ্লাইট বাতিল করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দর থেকে এসব ফ্লাইট বাতিল করে এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষ।

বিমানবন্দর সূত্র জানায়, শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উড়োজাহাজ অবতরণের সময় ইঞ্জিনে পাখি ঢুকে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

ফ্লাইট বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক উইং কমান্ডার ফরহাদ হোসেন বলেন, রাত সাড়ে ৮টার দিকে ফ্লাই দুবাইয়ের উড়োজাহাজটি অবতরণ করে। ফিরতি ফ্লাইটে ১৮০ জন যাত্রী নিয়ে রাত সাড়ে ৯টার দিকে দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু ইঞ্জিনের ভেতরে কিছু একটা আছে বুঝতে পেরে পাইলট বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে জানায়।

তিনি আরো বলেন, ইঞ্জিনের মধ্যে কিছু একটা আছে এবং টেকনিক্যাল সমস্যা হচ্ছে জানিয়ে সুরক্ষা এবং যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে তারা ফ্লাইটটি বাতিল করে। বিমানবন্দরে যেহেতু ইঞ্জিনিয়ারিং এবং টেকনিক্যাল ফ্যাসিলিটি নেই, তাই সকালে দুবাই থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং টিম এসে বিষয়টি দেখবেন।

ফ্লাইটের ১৮০ যাত্রীকে ফ্লাই দুবাই কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন হোটেলে রেখেছে বলে জানান তিনি।

একই কারণে বাংলাদেশ বিমানের মাস্কাটগামী ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে প্রকৌশলীরা এসে ইঞ্জিন পরীক্ষা করবেন বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ বিমানের যাত্রীদের রাত ১২টার পর পর্যায়ক্রমে নগরের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে রাত্রিযাপনের ব্যবস্থা করে বিমান কর্তৃপক্ষ।

তবে একই রাতে ২ ফ্লাইটের মোট ৪৩৪ জনকে চট্টগ্রামের বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করতে ফ্লাই দুবাই ও বাংলাদেশ বিমান কর্তৃপক্ষের হিমশিম খেতে হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

বিমানবন্দর সূত্র জানায়, মাস্কাটগামী বিমানের ফ্লাইটের শিডিউল পরিবর্তন করে আজ শুক্রবার দুপুর ১২টায় রাখা হয়েছে।

.

Author
চট্টগ্রাম ব্যুরো