অপেক্ষার অবসান, কালনা মধুমতি সেতু উদ্বোধন ১০ অক্টোবর

দক্ষিনাঞ্চালের মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন নড়াইলের লোহাগড়ার কালনা পয়েন্টে ‘মধুমতি সেতু’ উদ্বোধন হবে ১০ অক্টোবর। উদ্বোধনের দিন থেকেই সেতুতে চলবে গাড়ি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চ্যুয়ালি সেতু উদ্বোধন করবেন বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

অপেক্ষার প্রহর শেষে হয়ে দৃষ্টিনন্দন এ সেতু হতে যাচ্ছে দেশের প্রথম ছয় লেনের সেতু। এ সেতুর পূর্ব পাড়ে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলা এবং পশ্চিম পাড়ে নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা।

সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদফতরের ক্রস বর্ডার রোড নেটওয়ার্ক ইমপ্রুভমেন্ট প্রজেক্টের প্রকল্প পরিচালক (পিডি) শ্যামল ভট্টাচার্য ওই উদ্বোধনের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ১০ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী কালনা পয়েন্টের ‘মধুমতি সেতু’ ও নারায়ণগঞ্জের ‘শীতলক্ষা সেতু’ একই সঙ্গে উদ্বোধন করবেন। তবে কখন উদ্বোধন হবে তা এখনো নিশ্চিত হয়নি। দিনের প্রথমভাগে হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে।

এর আগে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের গত ২২ সেপ্টেম্বর ওই সেতু পরিদর্শনে আসেন। সেদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সেতু মন্ত্রী বলেছিলেন, অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেতুটি উদ্বোধন করবেন, তারিখ ও সময় নির্ধারণ করবেন তিনি।

সেতুতে গিয়ে দেখা যায়, মূল সেতু ও সংযোগ সড়কের সব কাজ শেষ হয়েছে। সেতুর মূল অংশের ল্যাম্পপোস্ট বসানো প্রায় শেষ হয়েছে। টোল প্লাজার আটটি বুথে যন্ত্রপাতি বসানোর প্রস্তুতি চলছে।

কালনা সেতুর প্রকল্প ব্যবস্থাপক ও সওজ নড়াইলের নির্বাহী প্রকৌশলী আশরাফুজ্জামান বলেন, সেতুতে ল্যাম্পপোস্ট দুই-তিনদিনের মধ্যেই বসানো শেষ হবে। টোল প্লাজার সামান্য কিছু কাজ বাকি আছে, যা উদ্বোধনের আগেই শেষ হবে। গাড়ি চলার জন্য পুরোপুরি প্রস্তত সেতুটি।

এছাড়া, ৭ অক্টোবর (শুক্রবার) রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধি সৌধে শ্রদ্ধা জানানো শেষে ফেরার পথে বিকেলে মধুমতি সেতু (কালনা) ও মধুমতি নদী দর্শন করার কথা রয়েছে।

স্বাআলো/এস

.