ক্রিকেটার আল-আমিনের বিরুদ্ধে স্ত্রীর আরেকটি মামলা, সমন জারি

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার আল-আমিন হোসেনের বিরুদ্ধে দাম্পত্য অধিকার ফিরে পেতে তৃতীয়বারের মতো মামলা করেছেন স্ত্রী ইসরাত জাহান। আদালত মামলা গ্রহণ করে আল-আমিনকে আদালতে হাজির হওয়ার জন্য সমন জারি করেছেন।

বুধবার (১৬ নভেম্বর) ঢাকার প্রথম সিনিয়র সহকারী জজ বেগম কানিজ তানিয়া রূপার আদালতে মামলাটি দায়ের করেন ইসরাত জাহান। এ নিয়ে আল-আমিনের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করলেন স্ত্রী ইসরাত জাহান।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আল আমিন পরকীয়ায় আসক্তির কারণে তার দুই সন্তান ও স্ত্রীকে লেখাপড়া এবং ভরণপোষণ প্রদান করেন না। একজন নারীর সঙ্গে তোলা ছবি ইসরাত জাহানকে পাঠিয়ে তার সঙ্গে সংসার করবে না বলে জানান। তারপর থেকে দুই বছর যাবৎ কোনো প্রকার খোঁজ নেন না।

আল-আমিন তার মা-বাবার কুপরামর্শে তাকে একতরফা তালাক দেন, যা আদতে কার্যকর নয়। তালাকের সংবাদ পেয়ে তার সঙ্গে বারবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ব্যর্থ হন। আল-আমিন ছাড়া তাদের সংসার জীবন অন্তঃসারশূন্য। এমতাবস্থায় তিনি দাম্পত্য জীবন পুনরুদ্ধারের জন্য এ মামলা দায়ের করেন বলে জানান ইসরাত।

স্ত্রীর মামলায় আল-আমিনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

এর আগে গত ১ সেপ্টেম্বর আল-আমিনের বিরুদ্ধে যৌতুক ও নারী নির্যাতনের অভিযোগ এনে ভিন্ন দুটি ধারায় মামলা করেছিলেন ইসরাত। এরপর ৭ সেপ্টেম্বর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দিনের আদালতে একই অভিযোগে আল-আমিনের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দফা মামলা দায়ের করেন ইসরাত।

আদালত মামলা আমলে নিয়ে আল আমিনকে আদালতে হাজির হতে সমন জারি করেন। তার প্রেক্ষিতে গত ২৭ সেপ্টেম্বর আল-আমিন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফিউদ্দিনের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। সেদিন শুনানি শেষে বিচারক পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় ৬ অক্টোবর পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করেছিলেন।

তৃতীয় দফায় এবার আল আমিনের বিরুদ্ধে দাম্পত্য অধিকার ফিরে পেতে মামলা করলেন ইসরাত।

স্বাআলো/এস