সাড়ে তিন হাজার গার্মেন্ট শ্রমিককে ২১ কোটি টাকা দেবে সরকার

শতভাগ রফতানিমুখী পোশাকশিল্পের শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের ২১ কোটি ৬৫ লাখ টাকা সহায়তা দেবে সরকার। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে গঠিত কেন্দ্রীয় তহবিল থেকে ৩ হাজার ৪২৮ জন শ্রমিককে মৃত্যুজনিত, চিকিৎসা ও শ্রমিকের সন্তানদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণে সহায়তা হিসেবে এই টাকা দেয়া হবে।

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) সচিবালয়ে কেন্দ্রীয় তহবিলের ১৮তম বোর্ডসভায় শ্রমিকদের আর্থিক সহায়তার বিষয়টি অনুমোদন দেয়া হয়।

মৃত্যুজনিত ও দুর্ঘটনায় স্থায়ী পঙ্গুত্ব বরণ করায় বিজিএমইএর ৪৯৫ জন এবং বিকেএমইএর ২৪১ জন শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যকে ১৪ কোটি ৬৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা দেয়া হবে। আর বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর ২ হাজার ৪০ জন শ্রমিক চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে ৫ কোটি টাকা ৬৮ লাখ ১৬ হাজার টাকা পাবেন। এর বাইরে শ্রমিকদের ৬৫২ জন মেধাবী সন্তানকে উচ্চশিক্ষার জন্য ১ কোটি ৩০ লাখ ৪০ হাজার টাকা দেবে সরকার।

বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী গঠিত কেন্দ্রীয় তহবিলে শতভাগ রফতানিমুখী পণ্যের মূল্যের শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে সরাসরি জমা হয়। এই তহবিল থেকেই শ্রমিকদের সহায়তা দেয়া হবে।

শ্রমসচিব এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক নাসির উদ্দিন আহমেদ, কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক মোল্লা জালাল উদ্দিন, বিকেএমইএর নির্বাহী সভাপতি মোহাম্মদ হাতেম, জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি নূর কুতুব আলম মান্নান, বাংলাদেশ জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক-কর্মচারী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনি বোর্ডসভায় অংশ নেন।

স্বাআলো/এসএ