৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ: প্রস্তুত হচ্ছে সফটওয়্যার, মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলেই গণবিজ্ঞপ্তি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে প্রায় ৭০ হাজার বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এর মধ্যে প্রায় ৩২ হাজার বিভিন্ন স্কুল-কলেজের। বাকিগুলো বিভিন্ন মাদরাসা ও কারিগরি প্রতিষ্ঠানের বলে জানা গেছে।

সোমবার সকাল থেকে শিক্ষক নিয়োগে কারিগরি সহায়তা দেয়া প্রতিষ্ঠান টেলিটকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সভা করেছেন এনটিআরসিএ কর্মকর্তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান এনামুল কাদের খান বলেন, গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের প্রস্তাবনা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় অনুমতি দিলে আমরা পরবর্তী কার্যক্রম শুরু করতে পারি। আমরা এদিকে প্রস্তুতির কাজ চালিয়ে যাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, শূন্যপদের যে তথ্যগুলো আমরা পেয়েছি, সেগুলো নিয়ে কাজ চলছে। আর সফটওয়্যার প্রস্তুত করা হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।

চলতি নভেম্বর মাসে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন কর্মকর্তারা। কবে নাগাদ এ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান বলেন, এটি নির্ভর করছে মন্ত্রণালয়ের ওপর। শূন্যপদের তথ্য যাচাই বাছাইয়ের পরও আমাদের কিছু কাজ আছে। কোন পদের জন্য কোন অধিদফতর এমপিও দেবে, কোন পদের জন্য নিয়োগ যোগ্যতা কি-সেসব বিষয় সুনির্দিষ্ট করা হচ্ছে।

কতগুলো পদে নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা প্রায় ৭০ হাজার এমপিওভুক্ত শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবো বলে আশা করছি।

কর্মকর্তারা বলছেন, শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর নির্দিষ্ট সময়ে শূন্যপদের তথ্য ওয়েবসাইটে প্রার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে। এরপর তারা আবেদনের সুযোগ পাবেন। এবার ১ হাজার টাকা ফি দিয়ে ৪০টি শিক্ষক পদে চয়েজ দিয়ে আবেদন করতে পারবেন।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
ঢাকা অফিস