সন্তানদের চাইলেও অপু-বুবলীকে নিতে চান না শাকিব খান

অপু বিশ্বাসের সঙ্গে বিচ্ছেদ হলেও সন্তান আব্রাম খান জয়ের সঙ্গে নিয়মিতই যোগাযোগ রয়েছে শাকিব খানের। জয়ের জন্মদিনে ছেলেকে নিয়ে শাকিব খানের আবেগঘন স্ট্যাটাস সেটাই প্রমাণ করে। এছাড়াও এবার জয়ের জন্মদিনটা শাকিব খানের বাসাতেই উদযাপন করা হয়েছে।

অন্যদিকে শাকিব-বুবীর সন্তান শেহজাদ খান বীর সামনে আসার পর বুবলীর সঙ্গেও দূরত্বের কথা জানিয়েছেন শাকিব। জানিয়েছেন বুবলীর সঙ্গে এখন তার যোগাযোগ নেই। যতটুকু যোগাযোগ হয় তার ছেলে বীরকে কেন্দ্র করেই।

তবে ছেলেদের সঙ্গে যোগাযোগ ও তাদের প্রতি ভালোবাসা থাকলেও সন্তানের মায়েদের প্রতি টান নেই শাকিবের। বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে শাকিব খানের কথায় সে কথাই প্রমাণীত হল। তিনি বললেন, একটা কথা নিশ্চিত করে বলতে চাই, অপু বিশ্বাস ও বুবলী দুইজনেই এখন আমার কাছে অতীত। তাদের সঙ্গে কোনো অবস্থায় আমার সম্পর্ক জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেই।

আবারো বিয়ের পিঁড়িতে বুবলী!

যদিও অপু বিশ্বাসের সঙ্গে বিচ্ছেদের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এলেও বুবলীর সঙ্গে বিচ্ছেদের আনুষ্ঠানিক কোনো ঘোষণা আসেনি। এর মধ্যেই তিনি জানালেন মায়ের সঙ্গে যোগাযোগ না হলেও বীরের সঙ্গে তার নিয়মিতই যোগাযোগ হবে। বীর তার কাছেই থাকবে।

শাকিব খানের ভাষ্য, শেহজাদ খান বীরের সঙ্গেও আমার দেখা হবে। সে আমার সঙ্গে থাকবে। এখন সে অনেক ছোট, তাই আলাদা করে আমার কাছে রাখতে পারি না, তবে শিগগিরই তারও আসা-যাওয়া হবে আমার বাড়িতে। দাদা-দাদি, ফুফা-ফুফুর আদর পাবে। শেহজাদ যখন স্কুলে যাওয়া শুরু করবে, তখন তার মায়ের সঙ্গেও আমার দেখা হবে এটা খুবই স্বাভাবিক।

তবে দুই সন্তানের মায়েদের নিয়ে শাকিব বলেন, তারা আমার দুই সন্তানের মা, সন্তানের মা হিসেবে তাদের প্রতি আমার যে সম্মান ও সম্পর্কটা থাকা দরকার, স্রেফ সেটুকুই থাকবে।

আর লুকিয়ে নয়, সবাইকে জানাবো: অপু বিশ্বাস

শাকিব-অপুর বিয়ে হয়েছিলো ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল। বিষয়টি গোপন ছিলো। ২০১৭ সালের ১০ এপ্রিল সন্তানসহ একটি বেসরকারি টেলিভিশনে লাইভে আসেন অপু বিশ্বাস। জানান, ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি ক্লিনিকে তাদের সন্তানের জন্ম হয়। নাম রাখা হয় আব্রাম খান জয়। ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করেই বিয়ে ও সন্তানের বিষয়টি গোপন রাখেন শাকিব-অপু।

এরপর বিভিন্ন অভিযোগে তিক্ত হয়ে উঠে শাকিব-অপুর সংসার। তার মধ্যে ঢুকে পড়েন চিত্রনায়িকা শবনম বুবলী। ২০১৭ সালের ১৮ মার্চ হঠাৎ করেই শাকিব খানের ছবি শেয়ার করে বুবলী লেখেন, ফ্যামিলি টাইম। এরপর তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন অপু বিশ্বাস। মানতে পারেননি পোস্টটি। লাইভে এসে জানিয়ে দেন সবকিছু।

অনেক জলঘোলা হওয়ার পর ২০১৭ সালের ২২ নভেম্বর বিচ্ছেদের আবেদন করেন শাকিব খান। এটি কার্যকর হয় ২০১৮ সালের ১২ মার্চ। তার ঠিক চার মাস ৯ দিন পর বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব খান।

স্বাআলো/এস

.

Author
বিনোদন ডেস্ক