বাগেরহাটে শালিস বৈঠকে হামলা, নারীসহ চারজনকে কুপিয়ে জখম

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বিরোধ নিরসনে আয়োজিত শালিস বৈঠকে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের চারজন জখম হয়েছে। নারীসহ চারজনকে ধারালো অস্ত্র দ্বারা কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার চরহোগলাবুনিয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনার পর আহতদেরকে মোড়েলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন- নান্না হাওলাদার (৪৮), তার স্ত্রী জেসমিন বেগম (৩৫), ছোট ভাই আলী হায়দার চুন্নু (৩৮), চাচা শাহ আলম হাওলাদার (৬০)।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নান্না হাওলাদার জানান, পারিবারিক জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিবেশী চাচাতো ভাই হাবিব হাওলাদারের সাথে বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার সময় এ সংক্রান্ত একটি শালিস বৈঠক চলাকালিন সময়ে পরিকল্পিতভাবে পার্শ্ববর্তী পিরোজপুর ইন্দুরকানি থানার উত্তর ভবানীপুর গ্রামের প্রতিপক্ষ আসমত আলী হাওলাদারের ছেলে হাবিব হাওলাদারের নেতৃত্বে রিয়াজ হাওলাদার ও তার ভাই কামরুল হাওলাদারসহ ৭-৮ জনের একটি দল দুবৃর্ত্ত চাপাতি, লোহার রড দিয়ে তাদের ওপর অর্তকিত হামলা চালায়। এ হামলায় তারা একই পরিবারের চারজনই গুরুত্বর জখম হন। থানা পুলিশকে হামলার বিষয়টি অবহিত করা হলে হাসপাতালে পরিদর্শন করেছেন।

হামলাকারিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান নান্না হাওলাদার।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ফারহানা আইরিন জলি বলেন, চিকিৎসাধীন চারজনের মধ্যে তিনজনই গুরুত্বর জখম। মাথায় এবং হাতে কয়েকটি সেলাই দেয়া হয়েছে।

মোড়েলগঞ্জ থানার ওসি সাইদুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
আজাদুল হক, বাগেরহাট
জেলা প্রতিনিধি