সময় হলেই বিদেশিদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন, বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সময় হলে আমরাও বিদেশিদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যাবো বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ রাজনীতিতে হস্তক্ষেপ করায় তিনি বিদেশিদের উদ্দেশে এ কথা বলেন।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি।

ড. মোমেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরীণ নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার জন্য তারা রাশিয়ার ২০-২১ জন কূটনীতিককে বের করে দিয়েছে। তারা শক্তিশালী দেশ বলে অনেক কিছুই পারে। আমাদের সেই শক্তি নেই বলে আমরা এই পথে যাই না। তবে সময় হলে আমরাও বিদেশিদের বিরুদ্ধে অ্যাকশনে যাবো।

ড. মোমেন বলেন, এটা দুঃখজনক যে কিছু লোক বিদেশিদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন, তারা চান বিদেশিরা কিছু বলুক। তবে বিদেশিরা যখন স্বদেশের কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়েন, তখন সে দেশের আর মঙ্গল হয় না। আপনি আফগানিস্তানের দিকে দেখেন, বিদেশিদের জ্বালায় কী কষ্টে আছে। চিলিতে একই ঘটনা ঘটেছিলো। চিলির নির্বাচিত সরকারও বিদেশিদের জ্বালায় ধ্বংস হয়ে গিয়েছিলো। আমাদের কিছু লোক বিদেশিদের কাছে ধরনা দেন। তারা যখনই মাতব্বরি করেছেন, তখন ওই দেশের অবস্থা খারাপ হয়েছে।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র কোনো বিদেশি রাষ্ট্রদূতকে এক পয়সারও পাত্তা দেয় না। ভারতেও বিদেশিরা অনেক কিছু বলে, তারাও পাত্তা দেয় না। যাদের সম্মান আছে, তারা বিদেশিদের কাছে গিয়ে কান্নাকাটি করে না। তবে আমাদের অভিজ্ঞতা হলো, যেখানেই তারা এসেছেন, সমস্যা হয়েছে। এ জন্য ওদের পরামর্শ শোনার প্রয়োজন নেই আমাদের। তবে তারা বলতে পারেন, আমরা শুনতে পারি। তারা যদি আমাদের কিছু জানাতে চান, আমাদের জানাতে পারেন।

ড. মোমেন বলেন, বিরোধী দলের বিদেশিদের কাছে মায়াকান্না না করে, জনগণের কাছে গেলেই ভালো হবে।

এর আগে রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে চ্যারিটি বাজারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন ড. মোমেন।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
ঢাকা অফিস