মাদক নির্মূলে সব কর্মকর্তাদের ডোপ টেস্টের আওতায় আনা দরকার: ডেপুটি স্পিকার

প্রশাসনের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ডোপ টেস্টের আওতায় আনা দরকার বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের ডিপুটি স্পিকার শামসুল হক টুকু। সেই সঙ্গে তিনি বলেছেন, তরুণ প্রজন্ম মাদকের প্রধান ভুক্তভোগী। এই প্রজন্মকে রক্ষার জন্য কী করা যায়- এ নিয়ে আমাদের আলোচনা করা দরকার।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় কক্সবাজারের হোটেল সী গালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ধূমপান ও মাদকবিরোধী অনুষ্ঠানে বক্তব্যকালে এ কথা বলেন তিনি।

ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে মসজিদের ইমাম পর্যন্ত সবাইকে ডোপ টেস্টের আওতায় আনা দরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে দেশ স্বাধীন হাওয়ার পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাদককে হারাম বলেছেন। ১৯৭৫ সালে তার হত্যাকাণ্ডের পর বাতিল করা ৫২টি মদ সরবরাহ প্রতিষ্ঠান নবায়ন করার মাধ্যমে মাদক কারবার আবারো সক্রিয় হয়ে ওঠে।

এ দিন অনুষ্ঠানে বক্তারা মাদকের কুফল ও প্রতিরোধে নানা দিক নির্দেশনামূলক আলোচনা করেন। পরে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার রোধে সবাই নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদের সভাপতিত্বে ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, জাফর আলম, আশেক উল্লাহ রফিক, নুরুল ইসলাম তালুকদার, মনোয়ার হোসেন চৌধুরী, ফখরুল ইমাম, আহমেদ ফিরোজ কবির ছাড়াও কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
চট্টগ্রাম ব্যুরো