বাগেরহাটে প্রতিপক্ষের হামলায় দলবদ্ধ ধর্ষণ মামলার সাক্ষী নিহত

লাশের ফাইল ছবি

বাগেরহাটে প্রতিপক্ষের হামলা ও মারধরে শামীম হাওলাদার (৩৬) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১১টায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এর আগে একই দিন রাত সাড়ে ৭টায় বাগেরহাট সদর উপজেলার বড়বাঁশবাড়িয়া এলাকায় ফিরোজ হাওলাদারের বাড়ির সামনে হামলার শিকার হন শামীম।

নিহত শামীম হাওলাদার বড় বাঁশবাড়িয়া এলাকার ইউসুফ হাওলাদারের ছেলে। তিনি ২৫ জুলাই বাগেরহাট মডেল থানায় হওয়া একটি দলবদ্ধ ধর্ষণ মামলার সাক্ষী ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ধর্ষণ মামলার আসামিদের নিকট আত্মীয় ফিরোজ হাওলাদারসহ কয়েকজন শামীমের ওপর হামলা করে। এতে শামীম গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল নেয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শামীমের মৃত্যু হয়।

বাগেরহাট জেলা পুলিশের মিডিয়া সেলের পুলিশ পরিদর্শক এসএম আশরাফুল আলম বলেন, বাগেরহাট জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। হামলাকারীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

স্বাআলো/এস

.

Author
আজাদুল হক, বাগেরহাট
জেলা প্রতিনিধি