ব্যাংকিং খাতের সবচেয়ে বড় সমস্যা ঋণখেলাপি

যশোর দেশের গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক এলাকা। এ জেলার শাক-সবজি, বিভিন্ন ধরনের ফল, ফুল, মিষ্টি, খেজুরের রস বিখ্যাত। পদ্মা সেতু হওয়ায় অর্থনৈতিক সুযোগ আরো বেড়েছে। ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ে এ আয়োজন মূলত সামাজিক দায়বদ্ধতারই বহিঃপ্রকাশ। ব্যবসা মূলত ঢাকা ও চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক হয়ে আছে। এতে বৈচিত্র্য আনা দরকার। আর্থিক খাত হলো আমাদের শিরা-উপশিরা। আর এ আর্থিক খাতের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হলো অব্যাংকিং আর্থিক খাত। জামানতের বাইরে ব্যবসার সম্ভাব্যতা ও ঐতিহ্য চিন্তা করে অব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো ঋণ দিয়ে থাকে। ব্যাংকিং খাতের সবচেয়ে বড় সমস্যা ঋণখেলাপি।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) বণিক বার্তার আয়োজনে বেলা ১২ টায় যশোরের ওরিয়ন ইন্টারন্যাশনাল হোটেলে ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো নিয়ে আয়োজিত এনবিএফআই মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

ঢাকার বাইরে প্রথমবারের মতো দেশের আর্থিক প্রতিষ্ঠান মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

তিনি বলেন, বড় বড় কোম্পানিগুলো ঋণখেলাপি করে। কিন্তু ব্যাংক বহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানে এ ঝুঁকি কম। এখানে কম সুদে ঋণ দেয়া হয়। যশোরে বিনিয়োগে অনেক সুযোগ রয়েছে। কৃষি খাতে বিনিয়োগের অপার সুযোগ রয়েছে। নভেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত দেশের ৬০ ভাগ শাক-সবজির যোগান দেয়। এসব কারণে সব ব্যাংকের শাখা এ জেলায় আছে। এসএমই খাতে সবচেয়ে বেশি সেবা দেয় অব্যাংক আর্থিক প্রতিষ্ঠান। আশা করবো এ জেলায় ব্যবসায়ীরা বিনিয়োগ বাড়াবে।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এখন বিভিন্ন সূচকে দক্ষিণ এশিয়ার সেরা দেশ। ভারতের চেয়ে মাথাপিছু আয় ও শিক্ষার হার আমাদের বেশি। শিশুমৃত্যুর হার দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে কম।

এনবিএফআই এর চেয়ারম্যান মমিনুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অবঃ) ডা. নাসির উদ্দিন, যশোর-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রফিকুল ইসলাম ও বণিক বার্তার সম্পাদক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ।

সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত মেলায় ৯টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। এ প্রতিষ্ঠানগুলো ঋণ প্রদানের বিষয়ে সরাসরি গ্রাহকদের সাথে কথা বলেন এবং সুবিধাদী তুলে ধরেন।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর