শিক্ষকদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তারা।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯ অনুসারে তাদের এ মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। সর্বশেষ জারি করা এ বিধিমালায় সহকারী শিক্ষকদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কে হবেন সে বিষয়ে সুস্পষ্ট নির্দেশনা ছিলো না। তাই, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

জানতে চাইলে মন্ত্রণালয়ে বিদ্যালয় শাখার অতিরিক্ত সচিব মুহিবুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আগেও সহকারী শিক্ষকদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ ছিলেন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা। কিন্তু সর্বশেষ নিয়োগ বিধিমালায় বিষয়টি নিয়ে সুস্পষ্টভাবে কোনো কিছু বলা ছিলো না। তাই জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে মনোনয়ন দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

গত ২৭ নভেম্বর মন্ত্রণালয়ে সচিব ফরিদ আহাম্মদ স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯ এর বিধি ২(ঘ) এ দেয়া ক্ষমতাবলে সরকার কর্তৃক জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারদের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে মনোনীত করা হলো।

এতে আরো বলা হয়েছে, নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ সংক্রান্ত ইতোপূর্বে জারিকৃত সব আদেশ বাতিল করা হলো। জনস্বার্থে এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালায় বলা ছিলো, নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ অর্থ সরকার বা সরকার কর্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত যেকোনো কর্মকর্তা। তবে, ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোন কর্মকর্তা এ ক্ষমতা পাবেন তা নিয়ে সুস্পষ্ট কিছু উল্লেখ ছিলো না বিধিমালায়। ২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের বিধিমালা জারির পর এর আগে ২০১৩ খ্রিষ্টাব্দে জারি করা শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা রহিত করা হয়েছিলো। তাই শিক্ষকদের নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ কে হবেন সে বিষয়টি অস্পষ্ট হয়ে পড়েছিলো।

স্বাআলো/এসএ