চুরির অভিযোগে ভরা স্টেডিয়ামে ৪ জনের হাত কেটে দিলো তালেবান

আফগানিস্তানের তালেবান কর্তৃপক্ষ প্রকাশ্যে ৯ জনকে বেত্রাঘাত করেছে। সেইসঙ্গে চুরির অভিযোগে চারজনের হাত কেটে নিয়েছে। তাদের শাস্তি দেখতে স্টেডিয়ামে উপস্থিত সাধারণ মানুষ।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, কান্দাহারের আহমেদ শাহি স্টেডিয়ামে বিরাট জনতার সামনে হাত কেটে নেয়া হয় ওই চার অভিযুক্তের। এদিন মোট নয় জন দোষীকে শাস্তি দেয়া হয়।

চুরি ছাড়াও ‘বিকৃত’ যৌনতার অপরাধের অভিযোগে দোষীদের প্রত্যেককে ৩৫ থেকে ৩৯ বার চাবুক মারা হয়। স্থানীয় প্রশাসন একথা জানিয়েছে।

আফগান সাংবাদিক তাজুদেন সোরৌশ টুইটারে লেখেন, এটা আর কিছুই নয়। ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি। নব্বইয়ের দশকে তালেবানের জনসমক্ষে দেয়া শাস্তির মতোই।

গত ডিসেম্বরে খুনের অপরাধে দোষী সাব্যস্ত এক ব্যক্তির প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিলো তালেবান প্রশাসন। ক্ষমতায় ফেরার পর এটিই ছিলো তাদের দেয়া প্রথম প্রকাশ্যে মৃত্যুদণ্ড।

তালেবান নতুন করে ক্ষমতা গ্রহণের পর ধর্মীয় কড়াকড়ি আরোপ করেছে দেশজুড়ে। পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত নারী শিক্ষায় লাগাম টানা হয়েছে।

বিভিন্ন দেশ তালেবানের এসব কর্মকাণ্ডের কড়া সমালোচনা করেছে। তবে তালেবান বলছে, ইসলামি শাসন থেকে সরবে না তারা। এর মধ্যে থেকেই সব ধরনের সংস্কার করা হবে।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
আন্তর্জাতিক ডেস্ক