মাঠে থাকলেও বিএনপির সঙ্গে সংঘাতে জড়াবে না আ.লীগ

আন্দোলনের নামে বিএনপি নাশকতা করতে পারে এমন আশঙ্কায় নির্বাচন পর্যন্ত আওয়ামী লীগও মাঠে থাকবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তবে পাল্টা কর্মসূচি দিলেও বিএনপির সঙ্গে কোনো সংঘাতে জড়ানোর ইচ্ছা আওয়ামী লীগের নেই বলে জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারী) সকালে সেতু ভবনে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

বিএনপির পাল্টা কর্মসূচি দিচ্ছে আওয়ামী লীগ- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেয় না। আওয়ামী লীগ অবিরাম কর্মসূচিতে আছে। বিএনপির সঙ্গে সংঘাত করার কোনো ইচ্ছা আওয়ামী লীগের নেই।

বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি তলে তলে সক্রিয়। তারা বড় ধরনের হামলা ও নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে- গোয়েন্দাদের কাছে এমন তথ্য রয়েছে। এজন্য জনগণের জানমাল রক্ষায় আওয়ামী লীগ রাজপথে আছে এবং থাকবে। নির্বাচন পর্যন্ত গণসংযোগ ও শান্তি সমাবেশ করবে।

তবে আওয়ামী লীগ রাস্তা দখল করে কর্মসূচি করে না দাবি করে তিনি বলেন, বিএনপি সমাবেশ করলে কতগুলো রাস্তা বন্ধ থাকে। আওয়ামী লীগের শ্যামলীর সমাবেশে একপাশ বন্ধ ছিলো, কিন্তু অন্যপাশ খোলা ছিলো। বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে পাশের দুই রাস্তায় খোলা থাকে, কোনো জ্যাম হয় না।

বিএনপির গণতন্ত্র উদ্ধার কর্মসূচি নিয়ে কাদের বলেন, গণতন্ত্র উদ্ধার অনেক আগেই হয়েছে। গণতন্ত্র নতুন করে উদ্ধার করার প্রয়োজন নেই। নিজেদের শাসনামলে তারা গণতন্ত্রকে কতটা গুরুত্ব দিয়েছে সেটা খুঁজে দেখুক। আজিজ মার্কা কমিশন, মাগুরা, ১৫ ফেব্রুয়ারি ও ঢাকা-১০ আসনের নির্বাচন, ২০০৬ সালে এক কোটি ভুয়া ভোটার দেখলেই বোঝা যায় তারা তো গণতন্ত্র মানে না, হত্যা করেছে। রেকর্ড তো আপনাদের জানা আছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল দাবি তুলেছেন, র‌্যাবের ওপর নয়, সরকারের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা দেয়া উচিত ছিলো। এ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগের ওপর নয়, বিএনপির ওপরই নিষেধাজ্ঞা আসা উচিত।

এর আগে সেতুভবনে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের বোর্ড সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় পদ্মা সেতুসহ সব সেতুতে একমাত্র রাষ্ট্রপতিকে টোল অব্যাহতির সিদ্ধান্ত হয়।

স্বাআলো/এসএ

.

Author
ঢাকা অফিস