টাকা গোনার পরীক্ষায় ফেল বর, মাঝপথেই বিয়ে ভাঙলো কনে!

টাকা গুনতে পারেননি হবু বর। শুধু এই কারণেই বিয়ে বাতিল করে দিলেন কনে। এমনই ঘটনার সাক্ষি থাকল ভারতের উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদ জেলা।

বিয়ে বাতিলের পরে শুরু হয় দুপক্ষের মধ্যে তুমুল বাতবিতণ্ডা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ। তারা দু’পক্ষের মধ্যে সমস্যাটি মিটমাট করার চেষ্টা করে। কিন্তু, কোনোভাবে কনে বিয়ে করতে রাজি হননি। ফলে বাধ্য হয়েই খালি হাতে ফিরতে হয়েছে বরকে।

জানা গেছে, পুরোহিতের সন্দেহ ছিলো বর মানসিক ভারসাম্যহীন। সেই সন্দেহের কথা তিনি কনের পরিবারকে জানান। এরপর বর আদৌও মানসিক ভারসাম্যহীন কিনা তা জানতে বরকে পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেন কনের পরিবার। এর জন্য তারা বরকে ১০ টাকার ৩০টি নোট গুনতে দেন। কিন্তু, বর নোট গুনতে ব্যর্থ হন। এমন ঘটনায় হতবাক হয়ে যান কনের পরিবার। এরপর বিয়ে করতে রাজি হননি কনে।

কনের ভাই মোহিত জানান, একজন নিকটাত্মীয় বর ঠিক করেছিলেন। ওই আত্মীয়র ওপর ভরসা থাকায় তার বিয়ের আগে বরকেও দেখেননি। তবে বিয়ের অনুষ্ঠানে পুরোহিত বরের আচরণ দেখে সন্দেহ করেন এবং আমাদের বিষয়টি জানান। সেই কারণে বর স্বাভাবিক কিনা তা জানার জন্য আমরা তাকে একটি সহজ পরীক্ষা করেছিলাম। আমি তাকে মোট ৩০টি ১০ টাকার নোট গুনতে বলেছিলাম। কিন্তু, উনি গুনতে পারেননি তাই আমার বোন তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।

এদিকে বিয়ে বন্ধের পর বর-কনের পরিবারের মধ্যে তুমুল তর্কাতর্কি হয়। তবে শেষ পর্যন্ত বিয়ে আর হয়নি।

স্বাআলো/এসএস

.

Author
আন্তর্জাতিক ডেস্ক