শপথ নিয়েও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের শিকার শিক্ষার্থীরা

ফাইল ছবি

এক ব্যাচ সিনিয়র শিক্ষার্থীদের (বড় ভাই) হাতে র‌্যাগিংয়ের শিকার হয়েছেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) স্থাপত্য ডিসিপ্লিনের নবীন শিক্ষার্থীরা। এসব শিক্ষার্থীদের ক্লাসের নির্দিষ্ট সময় শেষ হওয়ার পরও ঘণ্টার পর ঘণ্টা ক্লাসে আটকে রাখা হতো। কারণে-অকারণে তাদের গালাগালি করা হতো।

এসব অভিযোগ উল্লেখ করে গত মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বিষয়ক পরিচালক বরাবর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ বিষয়ে একটি অভিযোগপত্র পেয়েছেন। ইতোমধ্যে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নবীন শিক্ষার্থীদের দেয়া লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, বিভাগের প্রথম বর্ষের প্রথম সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে মানসিক নির্যাতন করেছেন একই ডিসিপ্লিনের প্রথম বর্ষের দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।

এতে আরো বলা হয়েছে, ক্লাসের নির্দিষ্ট সময় শেষ হওয়ার পরও ঘণ্টার পর ঘণ্টা ক্লাসে আটকে রাখা, কারণে–অকারণে গালাগালি করা, বিভিন্নভাবে মানসিক নির্যাতন করা ছাড়াও সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসের ভেতরে কোথাও ডেকে নিয়ে হয়রানি করছেন প্রথম বর্ষের দ্বিতীয় সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা।

গেলো কয়েক বছর ধরে র‌্যাগিং বন্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। প্রতি বছর ক্লাস শুরুর আগে শিক্ষার্থীদের মাদক ও র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে শপথ করানো হয়। চলতি বছর ১১ সেপ্টেম্বর থেকে প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী ‘একাডেমিক কাউন্সেলিং অ্যান্ড মোটিভেশন’ সেমিনার শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

স্বাআলো/এস

.

Author
খুলনা ব্যুরো