যশোরে আন্তঃজেলা চোর চক্রের ৮ সদস্য গ্রেফতার, সোনা উদ্ধার

যশোরের ডিবির জালে পাঁচ ভাইসহ আন্তঃজেলা চোর চক্রের আট সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তাদের কাছ থেকে চোরাই প্রায় সাত ভরি সোনা ও চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) নারায়নগঞ্জ থেকে তাদের আটক করা হয়। গত ৭ সেপ্টেম্বর দুপুরে যশোর শহরের পুরাতন কসবা এলাকায় বিমান বাহিনীর এক কর্মকর্তার বাড়ি থেকে সাত ভরি সোনা ও নগদ তিন লাখ ৩০ হাজার চুরি হয়।

আটককৃতরা হলো, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজি-মৌচাক রোডের সামছুল হক শুকুর আলীর পাঁচ ছেলে নয়ন ওরফে আকাশ ওরফে আলামিন (২৮), জাহিদুল ইসলাম শেখ (২৪), রিয়াদুল শেখ ওরফে রিয়াদ (২২), সাকিব ইসলাম (২০) ও শ্রাবণ ওরফে সাগর (১৬), বন্দর থানার ধামগড়-মদনপুর মনার বাড়ির ভাড়াটিয়া বাচ্চু মিয়ার ছেলে ইয়াছিন (৩৫), সোনারগাঁও থানার ললাটি-কাচপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩০) এবং যশোর শহরের চাঁচড়া মেডিকেল কলেজ এলাকার ফারুক হোসেনের ছেলে রিয়াজ হোসেন (২৩)।

পুলিশ জানিয়েছে, যশোর শহরের পুরাতন কসবা এলাকার বাসিন্দা বিমান বাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার আসাদুজ্জামানের ছয় তলা বাড়ির পাঁচ তলায় বসবাস করেন। গত ৭ সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টার দিকে পরিবারসহ তিনি বাড়ির বাইরে ছিলেন। ঘন্টা খানেক পরে এসে দেখেন ঘরের দরজার হ্যাসবোল্ট ভাঙ্গা। ভিতরে গিয়ে দেখেন আলমারির তালা ভাঙ্গা। আলমারিতে থাকা তিন লাখ ৩০ হাজার টাকা ও সাত ভরি সোনা অজ্ঞাতনামা চোরেরা নিয়ে গেছে। এসময় বাড়ির ক্লোজসার্কিট (সিসি) ক্যামেরায় দুইজনকে দেখা যায়। এই ঘটনায় ১৩ সেপ্টেম্বর আসাদুজ্জামান কোতোয়ালি থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি দিয়ে মামলা করেন।

মামলাটি ডিবি পুলিশের এসআই শফি আহম্মেদ রিয়েল এবং মফিজুল ইসলামের যৌথ প্রচেষ্টায় প্রযুক্তির মাধ্যমে ওই আটজনকে শনাক্ত করতে পেরে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ছয় ভরি ১৪ আনা সোনা ও চুরির কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

স্বাআলো/এস

.

Author
নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর