আজ বুধবার ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং ৮ ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ বসন্তকাল ১৪ জমাদিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম :
বন্দুকযুদ্ধে’ ছিনতাইকারী গুলিবিদ্ধ আজও বার্সেলোনা ড্র করেছে আজ দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী শুরুতেই তিন উইকেট হারাল বাংলাদেশ ঢাকায় অস্ট্রেয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৩৩১ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে বাংলাদেশ ২০ ফেব্রুয়ারি দিনটি কেমন যাবে ইতিহাস ঐতিহ্যে ভরপুর ঝিনাইদাহের বারোবাজার ইউসিবিএল ব্যাংকের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রাজ্জাকের পদত্যাগকে স্বাগত জানালেন ড. কামাল ৩১ শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধারের ঘটনায় দুই ডাক্তার বরখাস্ত মণিরামপুরে ভাইয়ের হাতে বোন খুন জেনে নিন, আনারস আর দুধ একসাথে খেলে কি হয় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ১৬টি অঙ্গরাজ্যের মামলা সড়ক দুর্ঘটনায় ডিশ ব্যবসায়ী নিহত নদী আর গহীন অরণ্যের মাঝে ঘুরে আসুন সুন্দরবন চুয়াডাঙ্গায় সোলার লাইট স্থাপন কার্যক্রম উদ্বোধন পুলিশ হেফাজতে সালমান মুক্তাদির জিজ্ঞাসাবাদ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞানের ২০ শতাংশ অগ্রাধিকার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন, জেনে নিন কি কি সুবিধা পাবেন চৌগাছায় আ.লীগ নেতা হত্যায় ১৭ জনের নামে মামলা মুক্তির অপেক্ষায় ‘বিউটি সার্কাস’: জয়া ও ফেরদৌস ১৫ মার্চ থেকে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুরু কাশিয়ানীতে কোচিং সেন্টারে অভিযান: পোড়ানো  হলো বেঞ্চ

কুরআন হাদিসের আলোকে আত্মীয়তার বন্ধন (১)

 

মাওলানা ইসরাফিল হোসেন : কুরআন-হাদিসে আল্লাহর এবাদতের পর মাতা-পিতার প্রতি সদয় ব্যবহার ও সদাচরণের নির্দেশ দেয়া হয়েছে, এর পর আত্মীয় স্বজনদের প্রতি। একাজগুলো প্রতিপালনের মাধ্যমে সমাজ জীবনের অশান্তি ও অমানবিকতার অন্ধকার থেকে মানুষের মুক্তি মেলে। এ গুণ মানুষকে অর্জন করতে হয়। আর এ গুণ অর্জন করতে হলে কুরআন ও হাদিস অনুসরণ করতে হবে, এর কোনো বিকল্প নেই।

আত্মীয় কারা? আত্মার সাথে যাদের সম্পর্ক আছে তারা আত্মীয়। এ সম্পর্ক নিকটেরও হতে পারে আবার দূরেরও। সবার সাথে সমান ব্যবহারের অনুসারী হতে হবে। এ ক্ষেত্রে কুরআন বলে, ‘হে মানবমন্ডলী ! তোমরা তোমাদের রবকে ভয় কর, যিনি তোমাদেরকে একটিমাত্র ব্যক্তিসত্তা থেকে সৃষ্টি করেছেন এবং সেই সত্তা থেকে সহধর্মীণি সৃষ্টি করেছেন এবং তাদের উভয় থেকে বহু নর-নারী ছড়িয়ে দিয়েছেন, আর তোমরা সেই আল্লাহকে ভয় করো যাঁর নামের দোহাই দিয়ে তোমরা একে অপরের চাও এবং আত্মীয়-স্বজনদের ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করো। নিশ্চয় আল্লাহ তোমাদের তত্ত্বাবধানকারী’ (সুরা নিসা, আয়াত -১)।

সুরা রুমের ৩৮ আয়াতে মাহন আল্লাহ বলেন, ‘অতএব আত্মীয়-স্বজনকে তাদের প্রাপ্য দিয়ে দাও, আর অভাবগ্রস্ত এবং মুসাফিরকেও, যারা আল্লাহর সন্তুষ্টি কামনা করে (জাকাত দানকারী ও সদকা প্রদানকারী) তাদের জন্য এটা শ্রেয় এবং তারাই সফলকাম।’

সুরা মুহাম্মদের ২২ ও ২৩ আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘সুতরাং ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হলে সম্ভবত তোমরা পৃথিবীতে বিপর্যয় সৃষ্টি করবে এবং আত্মীয়তার বন্ধন ছিন্ন করবে। আল্লাহ তাদের অভিশপ্ত করেছেন, অতপর করেছেন দৃষ্টি শক্তিহীন।’

পবিত্র কুরআনের সুরা নিসার ৩৬ আয়াতে আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা আল্লাহর গোলামী করো ও তাঁর সাথে কাউকে শরিক করো না, মাতা-পিতার সাথে ভালো ব্যবহার করো এবং নিকট আত্মীয় প্রতিবেশী, সঙ্গী-সাথী মুসাফির ও তোমাদের অধীনে যে সব দাস-দাসী রয়েছে তাদের প্রতি সদয় হও। নিশ্চয় মনে রেখো যে, আল্লাহ এমন লোকদের পছন্দ করেন না, যে বড় হওয়ার গৌরব করে ও অহংকার করে।’

এ থেকে একটি বিষয় স্পষ্ট বোঝা যায়, সদাচরণের ক্ষেত্রে মাতা-পিতার পরই আত্মীয় স্বজনের স্থান। কুরআনের সুষম নির্দেশনা মানবীয় সম্পর্কগুলোকে এ ভাবে স্তর বিন্যাস করে দিয়েছে, প্রথমে মাতা-পিতা পরিবার, তারপর খানিকটা প্রসারিত হয়ে নিকটাত্মীয়। এরপর বিশাল বিশ্ব সংসারের মানুষ, যারা মানবতার সুতোয় ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে পরস্পরের সাথে আবদ্ধ। সুষ্ঠু সমাজ গঠনের জন্যও এ প্রক্রিয়া পুরোপুরি ফলদায়ক। কেননা সামাজিক ভারসাম্য সৃষ্টির সূচনা হবে পারিবারিক গন্ডি থেকে। তারপর আত্মীয় স্বজন, শেষে অন্যরা।

আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষা করা ইসলামের মূল বিষয়গুলোর একটি এবং প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলোর অন্যতম। রসুলের (স.) দাওয়াত প্রথম দিন থেকে এ সত্য প্রমাণিত। তিনি আত্মীয়তা রক্ষার বিষয়টি  পরিষ্কারভাবে বর্ণনা করেছেন। এর গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা উম্মতের সামনে তুলে ধরেছেন।  এটি ইসলামী শরিয়তে অন্যতম তাৎপর্যপূর্ণ ও আলোচিত বিষয়। রোম স¤্রাট হিরাকিয়াসের সাথে আবু সুফিয়ানের (রা.) সুদীর্ঘ বৈঠকের যে বর্ণনা হাদিসে এসেছে তা থেকে বিষয়টি স্পষ্টভাবে প্রমাণিত। হিরাকিয়াস যখন আবু সুফিয়ানকে (রা.) জিজ্ঞাসা করলো,‘তোমাদের নবী তোমাদের কিসের আদেশ দেন? উত্তরে আবু সুফিয়ান (রা.) বলেন, তিনি বলেন, তোমরা এক আল্লাহর ইবাদত করো। তাঁর সাথে কাউকে শরিক করো না। তোমাদের বাপ-দাদাদের বানানো কাহিনী বর্জন করো, আর তিনি আমাদেরকে সালাত, সত্যবাদিতা, পবিত্রতা ও আত্মীয়তার সম্পর্ক রক্ষার আদেশ দেন। (বুখারি ও মুসলিম)।

লেখক : অবসরপ্রাপ্ত মাধ্যমিক শিক্ষক, নতুনহাট, সদর, যশোর।