আজ বুধবার ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং ৮ ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ বসন্তকাল ১৪ জমাদিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম :
বন্দুকযুদ্ধে’ ছিনতাইকারী গুলিবিদ্ধ আজও বার্সেলোনা ড্র করেছে আজ দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী শুরুতেই তিন উইকেট হারাল বাংলাদেশ ঢাকায় অস্ট্রেয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ৩৩১ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে বাংলাদেশ ২০ ফেব্রুয়ারি দিনটি কেমন যাবে ইতিহাস ঐতিহ্যে ভরপুর ঝিনাইদাহের বারোবাজার ইউসিবিএল ব্যাংকের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রাজ্জাকের পদত্যাগকে স্বাগত জানালেন ড. কামাল ৩১ শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধারের ঘটনায় দুই ডাক্তার বরখাস্ত মণিরামপুরে ভাইয়ের হাতে বোন খুন জেনে নিন, আনারস আর দুধ একসাথে খেলে কি হয় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ১৬টি অঙ্গরাজ্যের মামলা সড়ক দুর্ঘটনায় ডিশ ব্যবসায়ী নিহত নদী আর গহীন অরণ্যের মাঝে ঘুরে আসুন সুন্দরবন চুয়াডাঙ্গায় সোলার লাইট স্থাপন কার্যক্রম উদ্বোধন পুলিশ হেফাজতে সালমান মুক্তাদির জিজ্ঞাসাবাদ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞানের ২০ শতাংশ অগ্রাধিকার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন, জেনে নিন কি কি সুবিধা পাবেন চৌগাছায় আ.লীগ নেতা হত্যায় ১৭ জনের নামে মামলা মুক্তির অপেক্ষায় ‘বিউটি সার্কাস’: জয়া ও ফেরদৌস ১৫ মার্চ থেকে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুরু কাশিয়ানীতে কোচিং সেন্টারে অভিযান: পোড়ানো  হলো বেঞ্চ

পর্তুগালে একাত্তরের শহীদদের স্মরণ

৪৮তম মহান বিজয় দিবস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পর্তুগালে যথাযথ মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে ৪৮তম মহান বিজয় দিবস। নানা আয়োজনে দিবসটি পালন করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবন। ৭১ এর শহীদদের স্মরণে বিজয় দিবসে পর্তুগালের স্থানীয় সময় দুপুর ১২টায় দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

বিকেল ৪টায় কোরআন তেলওয়াত ও ত্রিপিটক পাঠের মধ্য দিয়ে এ দিবসের অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবন ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ পর্তুগাল শাখা। ৭১ এর শহীদদের স্মরণে এ সময় সমবেতভাবে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর সমবেত জাতীয় সংগীত গাওয়া হয়।

দূতালয় প্রধান হাসান আব্দুল্লাহ তৌহিদের সঞ্চালনায় বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন লিসবনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী।

আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রপতির বাণী পাঠ করে শোনান দূতালয় প্রধান হাসান আব্দুল্লাহ তৌহিদ, প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতালয় কর্মকর্তা সামিউল হক, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন সহকারী কনস্যুলার কর্মকর্তা মো. নুর উদ্দিন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করেন দূতালয় কর্মকর্তা মো. শাহাব উদ্দিন।

সভাপতির বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী বলেন, যুদ্ধপরবর্তী ধ্বংসস্তুপ থেকে একটি দেশ যদি অল্প সময়ের মধ্যে এত উন্নয়ন করতে পারে, যতই বাঁধা বিপত্তি আসুক না কেন আমার বিশ্বাস ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ থাকবে উন্নত দেশের কাতারে। তিনি উপস্থিত সকলকে বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা জানান।

আরো পড়ুন >>>ঐক্যফ্রন্টের প্রতিশ্রুতি মানে ‘ভূতের মুখে রাম নাম’

প্রবীণ কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব রানা তাসলিম উদ্দিন বলেন, আমাদের সবার মনে এই প্রেরণা থাকা উচিত যে আমি নিজেই একটি পতাকা হব, আমি নিজেই একটি মানচিত্র হব, আমি যেখানেই থাকবো বাংলাদেশ থাকবে আমার সঙ্গে। যেখানেই যাব বাংলাদেশকে তুলে ধরব, এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়ে।

কমিউনিটির ভেতর বক্তব্য রাখেন- পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল বাশার বাদশা, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. শাহাদাত হোসাইন প্রমুখ।

 

স্বাআলো/ এইসএম