শিরোনাম :
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১২০ তম জন্মবার্ষিকী আপনার জন্য আজকের রাশিফল পুত্রবধূর নির্যাতন সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিলেন বৃদ্ধ মোবাইল চার্জার মুখে দেয়ায় শিশুর মৃত্যু দেব-মিমি-নুসরাতদের জয় নিয়ে যা বললেন সাকিব বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় ইফতার মাহফিল হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু ভূমধ্যসাগর থেকে ১৪ বাংলাদেশিসহ ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার যশোর জেলা পরিষদের ইফতার মাহফিল ব্র্যাক ব্যাংকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে ৯৬৮০ নিয়োগ ভারতে কোচিং সেন্টারে আগুন, ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৩৮ রান সংগ্রহ দ. আফ্রিকার মোদির রাষ্ট্রে আগুন, নিহত ১৫ ২৬২ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে আফগানিস্তান নিষিদ্ধ ৫২ পণ্য বন্ধে ঝালকাঠিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্রিটিশের প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সাজিদ জাভিদ অভিযান চালিয়ে অপরিপক্ক ৫০ মণ আম ধ্বংস স্ত্রীকে নকল দিতে গিয়ে এএসআই কারাগারে হবিগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

তীব্র গরমে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট রোগ

তীব্র গরমে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট রোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকা : সংগৃহীতকড়া রোদ আর তীব্র গরমে বিভিন্ন হাসপাতালে বাড়ছে শ্বাসকষ্ট রোগীরা সংখ্যা। চিকিৎসকরা বলছেন, শীতে যেমন শ্বাসকষ্ট হয়, তীব্র গরমেও এ সমস্যা হতে পারে। এ কারণে রোগীদের গরম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আউটডোরেও শ্বাসকষ্টের রোগীর সংখ্যা অসংখ্য। তবে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বরত কর্মকর্তা বলেন, নভেম্বর থেকে জানুয়ারিতে সাধারণতে রোগীদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা হয়। তখন আমরা ডাটা সংগ্রহ করি। কিন্তু গরমকালে শ্বাসকষ্টের সমস্যা হয় এবং কত রোগী এর কারণে চিকিৎসা নিচ্ছে এমন কোনও ডাটা আমাদের কাছে নেই।

তিনি আরও বলেন, আমরা এখন রোজার মাসে আমাদের স্যানিটারি ইন্সপেক্টরদের খাবারগুলো পরিদর্শন করতে বলেছি। মানুষের জন্য আমাদের যেটা পরামর্শ, যেহেতু একইসঙ্গে রোজা এবং গরম। গরম লাগতে পারে আবার ঠাণ্ডাও লাগতে পারে। তারা যেন প্রখর রোদ এভয়েড করে। রাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করতে হবে। গরমে শরীরে ঘাম হলে কাপড় দিয়ে মুছে গা শুকাতে হবে। আর পানির সঙ্গে লবন মিশিয়ে যদি খাওয়া যায় তাও ভালো।

আরো পড়ুন>>> অস্বস্থিকর গরম থাকবে পুরো রমজান মাস

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক বলেন, শ্বাসকষ্ট শীতকালীন রোগ। কিন্তু এখন প্রচুর কার্ডিয়াক রোগী পাচ্ছি যারা গরমকালে শ্বাসকষ্ট নিয়ে আমাদের এখানে ভর্তি হচ্ছে। এটার প্রধান কারণ আমরা মনে করছি, বায়ু দূষণ। প্রাণীরা কার্বন ডাই অক্সাইড ছাড়ে আর গাছ তা গ্রহণ করে এবং প্রাণীরা গাছের ছাড়া কার্বন ডাই অক্সাইড গ্রহণ করে, আমরা ছোটবেলা থেকেই এটা সবাই জানি। কিন্তু এখন গাছের সংখ্যা কমে যাচ্ছে। আর এর প্রভাব আমরা এখন সরাসরি রোগীদের ওপর দেখতে পাচ্ছি।

প্রতিকার প্রসঙ্গে ডা. হারিসুল হক বলেন, একটি দেশের যতটুকু বনভূমি থাকা দরকার সেটা যদি আমরা আনতে না পারি অন্তত লিমিটেড অবস্থায় যেতে না পারি তাহলে এই ধরনের রোগীর সংখ্যা আগামীতে আরও বাড়বে। তাই একজন চিকিৎসক হিসেবে এই অবস্থা পরিবর্তনের জন্য অবশ্যই গাছ লাগানোর ওপর জোর দেবো।

স্বাআলো/এএম