শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা স্বাস্থ্যসেবায় ৫০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চার সংস্থা প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি অস্থায়ী কর্মপরিষদের দুর্নাম ঘোচাতে বাকসু নির্বাচন দাবি কাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন শ্রদ্ধা সঙ্গে রোহান দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাকে বিয়ে করছেন মিরাজ ৮ম স্কেলে বেতনসহ ১০ দফা দাবি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রথম দিন থেকেই আইপিএলে থাকছেন সাকিব মাগুরায় আন্তর্জাতিক বর্ণ বৈষম্য বিলোপ দিবস পালিত দাবি আদায়ে খুলনার শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ বিএনপি সব ঘটনায় উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করে: হানিফ খুলনার রূপসায় ট্রলি চাপায় শিশু নিহত এইচএসসি পরীক্ষার্থী হৃদয় নিহত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা এবার তিন সেনা সদস্য খুন সহকর্মীর হাতে নিউজিল্যান্ডে সব ধরনের আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধের ঘোষণা ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করার উপায় কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত আজকের খেলা আগামীকাল মোস্তাফিজের বিয়ে সুপ্রভাত-জাবালে নূর বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আজ পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসছে ২১ মার্চ দিনটি কেমন যাবে নির্বাচনী প্রচারণা শেষে প্রার্থী ফেরার পর শংকরপুরে বোমাবাজি চাকসু নির্বাচনে বৃহস্পতিবার কমিটি গঠন

ইউসিবিএল ব্যাংকের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর: যশোর অভয়নগরের ইউসিবিএল ব্যাংকের সাবেক ম্যানেজার (বরখাস্ত) শেখ মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

আজ সোমবার যশোরের স্পেশাল জেলা জজ আদালতের বিচারক শেখ ফারুক হোসেন তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। একটি দুর্নীতি মামলায় শেখ মনিরুজ্জামানের বিরুদ্ধে চার্জশিট গ্রহণের পর এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়। এই মামলায় অপর চার্জশিট ভুক্ত আসামি শেখ মাসুম উল ইসলামের বিরুদ্ধেও গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের পিপি অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম।

শেখ মনিরুজ্জামান খুলনা দৌলতপুরের দিয়ানা গ্রামের শেখ গোলাম কুদ্দুসের ছেলে এবং শেখ মাসুম উল ইসলাম খুলনা সদরের মির্জাপুর গ্রামের শেখ সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

আদলত সূত্রে জানা যায়, ২০০২ সাল থেকে ২০০৯ পর্যন্ত শেখ মনিরুজ্জামান ইউসিবিএল নওয়াপাড়া বাজার শাখার ব্যবস্থাপক ছিলেন। এ সময় মেসার্স সৌরভ এন্টারপ্রাইজের মালিক শেখ মাসুম উল ইসলাম এ শাখায় একটি সিডি হিসাব খোলেন। ব্যবস্থাপক মনিরুজ্জামন নিজে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে তাকে এক কোটি ৩০ লাখ ৩৮ হাজার ৮৮৭ টাকা ঋণ পাইয়ে দেন। পরবর্তীতে বিষয়টি ব্যাংক কতৃপক্ষের নজরে আসলে তৎকালীন ব্যবস্থাপক আনোয়ার ইকবাল দুর্নীতির অভিযোগে ওই দুইজনকে আসমি করে অভয়নগর থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটি দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারি পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী তদন্ত শেষে ওই দুইজনকে অভিযুক্ত করে গত ৬ জানুয়ারি আদালতে চার্জশিট জমা দেন।

মামলাটি বিচারের জন্য যশোরের বিশেষ দায়রা জজ আদালতে বদলী করা হলে আজ সোমবার মামলার ধার্য দিনে বিচারক চার্জশিট গ্রহণ করে আসামিদের প্রতি এ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

স্বাআলো/ডিএম