শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা স্বাস্থ্যসেবায় ৫০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চার সংস্থা প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি অস্থায়ী কর্মপরিষদের দুর্নাম ঘোচাতে বাকসু নির্বাচন দাবি কাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন শ্রদ্ধা সঙ্গে রোহান দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাকে বিয়ে করছেন মিরাজ ৮ম স্কেলে বেতনসহ ১০ দফা দাবি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রথম দিন থেকেই আইপিএলে থাকছেন সাকিব মাগুরায় আন্তর্জাতিক বর্ণ বৈষম্য বিলোপ দিবস পালিত দাবি আদায়ে খুলনার শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ বিএনপি সব ঘটনায় উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করে: হানিফ খুলনার রূপসায় ট্রলি চাপায় শিশু নিহত এইচএসসি পরীক্ষার্থী হৃদয় নিহত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা এবার তিন সেনা সদস্য খুন সহকর্মীর হাতে নিউজিল্যান্ডে সব ধরনের আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধের ঘোষণা ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করার উপায় কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত আজকের খেলা আগামীকাল মোস্তাফিজের বিয়ে সুপ্রভাত-জাবালে নূর বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আজ পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসছে ২১ মার্চ দিনটি কেমন যাবে নির্বাচনী প্রচারণা শেষে প্রার্থী ফেরার পর শংকরপুরে বোমাবাজি চাকসু নির্বাচনে বৃহস্পতিবার কমিটি গঠন

মাত্র ৫ সেকেন্ডেই ধ্বংস হবে পৃথিবী

৫ সেকেন্ড

ডেস্ক রিপোর্ট : মাত্র ৫ সেকেন্ড অক্সিজেন না থাকলে কি হতে পারে? ৫ সেকেন্ড নিঃশ্বাস বন্ধ করে রাখলেই তো হয়। খুব সহজে ৫ সেকেন্ড নিঃশ্বাস বন্ধ করে রাখা যায়। কিন্তু প্রশ্ন হলো এই পাঁচ সেকেন্ডে পৃথিবীর কি হবে? আশ্চর্য হলেও সত্যি, ভেঙ্গে পড়বে কংক্রিটের স্থাপনা, উল্কার মতই খসে পড়বে আকাশে উড়তে থাকা প্লেন, ঘটে যাবে পরিবেশের বিশাল বিপর্যয়।

পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের ২১ ভাগই অক্সিজেন। আর ৭৮ ভাগ নাইট্রোজেন। বায়ুমন্ডলের বড় অংশ জুড়ে না থাকলেও সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই অক্সিজেন। অক্সিজেন ছাড়া প্রানী, উদ্ভিদ, পানি এমনকি মানুষও নিজস্ব অবস্থানে থাকতো না।

এবার আসি পাঁচ সেকেন্ড অক্সিজেন ছাড়া কি হতে পারে। যে কারো মনে হতেই পারে, মাত্র পাঁচ সেকেন্ড অক্সিজেন ছাড়া কি আর হবে। কারণ বেশির ভাগ মানুষই কমপক্ষে ৩০ সেকেন্ড শ্বাস-প্রশ্বাস না নিয়ে থাকতে পারে। তাই পাঁচ সেকেন্ড অক্সিজেন ছাড়া হয়তো মানুষ টিকে থাকতে পারবে। কিন্তু বাকি সব কিছুর কি হবে? বলা হয়, অক্সিজেন বিহীন মাত্র পাঁচ সেকেন্ডেই পাল্টে যাবে পৃথিবী।

ধ্বংস

অক্সিজেন ছাড়া কংক্রিটের তৈরি সব স্থাপনাই ভেঙ্গে পড়বে। কারণ কংক্রিটকে জমাটবদ্ধ রাখতে বিশেষ ভূমিকা রাখে এটি। তাই এটি ছাড়া কংক্রিট ধুলা ছাড়া আর কিছুই নয়। একটি ভবনের কথাই ধরা যাক। অক্সিজেন ছাড়া ভবনের অপরিশোধিত সব ধাতু একসাথে মিলে যাবে। কারণ ধাতুতে অক্সিডেশনের প্রলেপ থাকে যা ধাতুকে আলাদা করে রাখে। এই প্রলেপ ছাড়া ধাতুগুলো তাৎক্ষণিক একটি অন্যটির সাথে আটকে যাবে।

সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি পৃথিবীতে প্রবেশে বাধা দেয় ওজন স্তর। এ স্তরটি অক্সিজেনের তৈরি। তাই অক্সিজেন না থাকলে, এই ক্ষতিকর রশ্মি থেকে আমাদের রক্ষা পাবার কোন উপায় থাকবে না। রোদে মারাত্মক ভাবে পুড়ে যাবে ত্বক। আর পৃথিবী অনেক বেশি বিপদজনক হয়ে উঠবে।

অক্সিজেনের অভাবে আমাদের শ্রবণ স্তর ফেটে যাবে। অক্সিজেন হারানো মানে হলো আমাদের বাতাসের চাপ ২১ শতাংশ হারানো। এতো দ্রুত বাতাসের চাপে পরিবর্তন অনেকটা হঠাৎ করে সমুদ্রের দুই হাজার মিটার নিচে পতিত হওয়ার মতোই। আমাদের কান এতো দ্রুত পরিবর্তন সহ্য করতে পারবেনা।

অক্সিজেন ছাড়া আগুনও থাকবে না। গাড়ির দহন প্রক্রিয়া থেমে যাবে। ইলেকট্রিক নয়, পরিবহনের এমন সব প্রক্রিয়া অচল হয়ে পড়বে। সড়কে আটকে যাবে লাখ লাখ গাড়ি। বায়ুমন্ডলে অক্সিজেন না থাকলে আকাশে থাকা বিমানও আকস্মিকভাবে মাটিতে আছড়ে পড়বে।

৫ সেকেন্

সূর্যের আলো পৃথিবীতে পৌছানোর আগে, বায়ুমন্ডলে থাকা বিভিন্ন উপাদানের সাথে প্রতিফলিত হয়। অক্সিজেন না থাকলে বায়ুমন্ডলে এসব উপাদানের উপস্থিতি আশঙ্কাজনক হারে কমে যাবে। ফলে সূর্য রশ্মি প্রতিফলিত না হওয়ায় আকাশ পুরো অন্ধকার হয়ে যাবে।

পৃথিবীর ভূত্বক বা উপরিভাগের উপাদানের মধ্যে ৪৬ ভাগ অক্সিজেন রয়েছে। তাই অক্সিজেন ছাড়া ভূত্বকের শক্ত আবরনও ভেঙ্গে পরতে থাকবে। ধসে পড়বে উপরিভাগের সব ভবন আর স্থাপনা। বাদ যাবে না মানুষ আর প্রাণীও। তাই বলা যায়, মাত্র পাঁচ সেকেন্ড অক্সিজেন ছাড়া ধ্বংস হয়ে যাবে পুরো পৃথিবী।

স্বাআলো/এইসএম