শিরোনাম :
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১২০ তম জন্মবার্ষিকী আপনার জন্য আজকের রাশিফল পুত্রবধূর নির্যাতন সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিলেন বৃদ্ধ মোবাইল চার্জার মুখে দেয়ায় শিশুর মৃত্যু দেব-মিমি-নুসরাতদের জয় নিয়ে যা বললেন সাকিব বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় ইফতার মাহফিল হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু ভূমধ্যসাগর থেকে ১৪ বাংলাদেশিসহ ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার যশোর জেলা পরিষদের ইফতার মাহফিল ব্র্যাক ব্যাংকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে ৯৬৮০ নিয়োগ ভারতে কোচিং সেন্টারে আগুন, ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৩৮ রান সংগ্রহ দ. আফ্রিকার মোদির রাষ্ট্রে আগুন, নিহত ১৫ ২৬২ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে আফগানিস্তান নিষিদ্ধ ৫২ পণ্য বন্ধে ঝালকাঠিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্রিটিশের প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সাজিদ জাভিদ অভিযান চালিয়ে অপরিপক্ক ৫০ মণ আম ধ্বংস স্ত্রীকে নকল দিতে গিয়ে এএসআই কারাগারে হবিগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

মরিচ ক্ষেতে পচনরোগ : লোকসানের আশঙ্কায় হতাশ চাষি

লোকসানের আশঙ্কায় হতাশ চাষি

রংপুর ব্যুরো : পঞ্চগড় সদর, তেতুঁলিয়া, আটোয়ারী ও বোদা উপজেলায় মরিচ ক্ষেতে অ্যানথ্রাকনোজ (টেপা পচা) রোগ দেখা দিয়েছে। ফলে হতাশ হয়ে পড়েছেন পঞ্চগড়ের মরিচ চাষিরা। বিভিন্ন ধরনের কীটনাশক স্প্রে করেও লোকসানের আশঙ্কা করছেন তারা। বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায় মরিচ আবাদে কৃষকেরা হতাশ হয়ে জমি থেকে মরিচ তুলে শুকানোর কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

হঠাৎ করে মরিচ ক্ষেতে নানা রকম পোকার আক্রমণ হয়েছে। এছাড়া টেপা ও পচা (অ্যানথ্রাকনোজ) রোগে আক্রান্ত হয়ে গাছেই মরিচ পচে শুকিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের কীটনাশক স্প্রে করেও মরিচকে রক্ষা করা যাচ্ছে না।

চাষিদের অভিযোগ, এ অবস্থায় কৃষি বিভাগের কোনো লোক মাঠে এসে তাদের সহায়তা করেনি। আর এতে লোকনের মুখে পড়েছেন তারা।

জেলার পঞ্চগড় সদর, তেতুঁলিয়া, আটোয়ারী ও বোদা উপজেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক চাষিরা মহাজনের থেকে ঋণ নিয়ে ও ধার-দেনা করে মরিচ চাষ করেছেন। মরিচ গাছ থেকে তুলে রোদে শুকাতে দেয়া হয়েছে। পঞ্চগড় সদর উপজেলার ক্ষুদ্র চাষি আব্বাস মিয়া ও আটোয়ারী উপজেলার চাষি ছিদ্দিক হোসেন বলেন, আমরা ঋণ করে এবার লাভের আশায় মরিচ চাষ করেছি। কিন্তু পোকার আক্রমণে এবং (অ্যানথ্রাক্সনোজ) টেপা ও পচা রোগে আক্রান্ত হয়ে মরিচ গাছে পচন ধরেছে। লাভ তো দূরের কথা ঋণের টাকা কিভাবে পরিশোধ করব তাই ভাবছি।

আরো পড়ুন>>> মাগুরায় নালিম চাষে কৃষকের আগ্রহ বাড়ছে

তেঁতুলিয়া উপজেলার কৃষক নুর আলম ও জয়নাল আলী বলেন, গত বছরগুলোতে মরিচ চাষ করে ভালো লাভ হয়েছিল। তাই এবারো লাভের আশায় মরিচ চাষ করেছি। এখন পোকার আক্রমণে লাভ তো দূরের কথা আসল উঠাতে পারবো কিনা জানি না।

পঞ্চগড় জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু হানিফ বলেন, জেলায় এ বছর ১০ হাজার ৪৪০ হেক্টর জমিতে বাঁশগাইয়া, বিন্দু, হট মাস্টারসহ স্থানীয় জাতের মরিচের চাষ করা হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ১ হাজার হেক্টর বেশি। মরিচের আবাদ তো ভালোই হয়েছে। প্রতি হেক্টর জমিতে প্রায় ২ টন শুকনো মরিচের ফলন পাওয়া যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে কিছু কিছু এলাকায় জলবায়ু পরিবর্তন, দিনে গরম রাতে ঠাণ্ডার কারণে মরিচ (অ্যানথ্রাকনোজ) টেপা ও পচা রোগে আক্রান্ত হয়েছে। কৃষি বিভাগ চাষিদের সর্বাত্মক সহায়তা দিয়ে আসছে। কৃষকরা মরিচ চাষে লাভবান হবেন।

স্বাআলো/এএম