শিরোনাম :
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১২০ তম জন্মবার্ষিকী আপনার জন্য আজকের রাশিফল পুত্রবধূর নির্যাতন সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিলেন বৃদ্ধ মোবাইল চার্জার মুখে দেয়ায় শিশুর মৃত্যু দেব-মিমি-নুসরাতদের জয় নিয়ে যা বললেন সাকিব বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় ইফতার মাহফিল হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু ভূমধ্যসাগর থেকে ১৪ বাংলাদেশিসহ ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার যশোর জেলা পরিষদের ইফতার মাহফিল ব্র্যাক ব্যাংকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে ৯৬৮০ নিয়োগ ভারতে কোচিং সেন্টারে আগুন, ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৩৮ রান সংগ্রহ দ. আফ্রিকার মোদির রাষ্ট্রে আগুন, নিহত ১৫ ২৬২ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে আফগানিস্তান নিষিদ্ধ ৫২ পণ্য বন্ধে ঝালকাঠিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্রিটিশের প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সাজিদ জাভিদ অভিযান চালিয়ে অপরিপক্ক ৫০ মণ আম ধ্বংস স্ত্রীকে নকল দিতে গিয়ে এএসআই কারাগারে হবিগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

সোনাগাজী আ.লীগ সভাপতি রুহুল পাঁচদিনের রিমান্ডে

জেলা প্রতিনিধি, ফেনী : মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাকাণ্ডের মামলায় ফেনীর সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিনের পাঁচ দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহমেদ এই রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে বিকেল পুলিশ রুহুল আমিনকে আদালতে হাজির করে নুসরাত হত্যার ঘটনা সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমাণ্ডের আবেদন করে। শুক্রবার বিকেলে নিজ বাড়ি থেকে রুহুলকে আটক করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পরে তাঁকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। নুসরাত হত্যাকাণ্ডে রুহুল আমিনসহ এ পর্যন্ত ১৯ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নুসরাত হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও পিবিআইয়ের পরিদর্শক মোহাম্মদ শাহ আলম জানান, রুহুল আমিনকে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহমেদের আদালতে হাজির করে নুসরাত হত্যার ঘটনা সম্পর্ক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমাণ্ডের আবেদন জানানো হয়েছিল। আদালত পাঁচ দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন।

আরো পড়ুন>> নুসরাত হত্যার বিচার দাবিতে সোনালী স্বপ্নের প্রতিবাদ সভা

গত রবিবার ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহমদের আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন নুসরাত হত্যা মামলার অন্যতম আসামি শাহাদাত হোসেন ওরফে শামীম। জবানবন্দিতে শাহাদাত বলেন, নুসরাতের শরীরের আগুন দেওয়ার পর তিনি রুহুল আমিনকে বিষয়টি মোবাইলে জানান। তখন রুহুল আমিন তাঁকে বলেন, ‘আমি বিষয়টি শুনেছি তোমরা চলে যাও।’ মূলত, শাহাদাতের জবানবন্দির পর থেকে নুসরাত হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে রুহুলের যোগসাজশ আছে, এমন অভিযোগ জোরালো হতে থাকে বিভিন্ন মহল থেকে। তবে নুসরাত হত্যা মামলার এজাহারে রুহুল আমিনের নাম নেই।

রুহুল আমিন সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সদ্য বাতিল হওয়া পরিচালনা পর্ষদের সহসভাপতি ছিলেন। তিনি অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার কাছের মানুষ বলে এলাকায় পরিচিত। অভিযোগ রয়েছে, শ্লীলতাহানি, আর্থিক অনিয়মসহ অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে ওঠা বিভিন্ন সময়ের অভিযোগের ক্ষেত্রে রুহুল নির্লিপ্ত ছিলেন।

এলাকারবাসীর আরও অভিযোগ, শ্লীলতাহানির মামলায় গত ২৭ মার্চ যখন অধ্যক্ষ কারাগারে যান, তখন রুহুল আমিনের লোকজন প্রতিবাদকারীদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। পাশাপাশি ২৮ ও ৩০ মার্চ তার লোকজন অধ্যক্ষের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দেন।

স্বাআলো/এম