আজ বুধবার ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ইং ৮ ফাল্গুন, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ বসন্তকাল ১৩ জমাদিউস-সানি, ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম :
ইতিহাস ঐতিহ্যে ভরপুর ঝিনাইদাহের বারোবাজার ইউসিবিএল ব্যাংকের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা রাজ্জাকের পদত্যাগকে স্বাগত জানালেন ড. কামাল ৩১ শিশুর দেহাবশেষ উদ্ধারের ঘটনায় দুই ডাক্তার বরখাস্ত মণিরামপুরে ভাইয়ের হাতে বোন খুন জেনে নিন, আনারস আর দুধ একসাথে খেলে কি হয় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ১৬টি অঙ্গরাজ্যের মামলা সড়ক দুর্ঘটনায় ডিশ ব্যবসায়ী নিহত নদী আর গহীন অরণ্যের মাঝে ঘুরে আসুন সুন্দরবন চুয়াডাঙ্গায় সোলার লাইট স্থাপন কার্যক্রম উদ্বোধন পুলিশ হেফাজতে সালমান মুক্তাদির জিজ্ঞাসাবাদ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞানের ২০ শতাংশ অগ্রাধিকার নকলের সুযোগ না দেয়ায় শিক্ষিকাকে জুতাপেটা স্মার্ট কার্ড পেয়েছেন, জেনে নিন কি কি সুবিধা পাবেন চৌগাছায় আ.লীগ নেতা হত্যায় ১৭ জনের নামে মামলা মুক্তির অপেক্ষায় ‘বিউটি সার্কাস’: জয়া ও ফেরদৌস ১৫ মার্চ থেকে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা শুরু কাশিয়ানীতে কোচিং সেন্টারে অভিযান: পোড়ানো  হলো বেঞ্চ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পারভীন হকের শ্রদ্ধা যেই ১০টি উক্তি বদলে দিবে তোমার জীবন ছোট দোয়ার গুরুত্ব অনেক বেশি ইতিহাস বিকৃতি করায় সম্পাদককে হাইকোর্টে তলব দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনী মাঠে বিএনপির তিন নেতা বৃষ্টি হলেই রাস্তা ছেঁড়া কাঁথার মত হয় কেন : কাদের যশোরে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী বিপুলের আ.লীগ নেতাদের সাথে মতবিনিময়

যশোরে ম্যানসেল বাহিনীর বোমা হামলা: হরিজনদের বিক্ষোভ

যশোরে বোমাবাজি-সুইপারদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর: যশোরের শীর্ষ সন্ত্রাসী, একাধিক হত্যা মামলার আসামি ম্যানসেল বাহিনী চাঁদার দাবিতে হরিজন পল্লীতে বোমা হামলা চালিয়েছে। হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা এসময় রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেছে। দফায় দফায় বিক্ষোভ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। যশোর কোতয়ালি থানার ওসি ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে।

হরিজন পল্লীর বাসিন্দা রঞ্জন সরকার, সাধন, নিলয়, বাসন্তি জানান, স্টেশন এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী ম্যানসেল কয়েকদিন আগে হরিজন পল্লীতে মাদক ব্যবসা বন্ধ করার কারণ জানতে চান। সে সময় পল্লীর বাসিন্দারা কোন অবস্থায় মাদক বিক্রি করবে না জানিয়ে দিলে সে প্রতি সপ্তাহে (মাদক ব্যবসার লাভ বাবদ) দশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। হরিজনরা ওই চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করে। তখন হরিজন পল্লী নিশ্চিহ্ন করার হুমকি দিয়ে ম্যানসেল চলে যায়।

বাসন্তি রাণী, অমেলা রাণী, রঞ্জন, মালতি রাণী, শিলা রাণী জানান,  আজ রবিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে ম্যানসেল বাহিনীর সদস্য জাহিদ, সুমন, মেহেদি, রমজান, সাগর, নয়ন, রবিউলসহ ৭-৮জন হরিজন পল্লীতে আসেন এবং মাদক ব্যবসা করতে চাপ দেয়। বাসিন্দারা এসময় রাজি না হলে তারা দশ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে সন্ত্রাসীরা অমেলা এবং বাসন্তিকে মারপিট করে। পল্লীর অন্য বাসিন্দারা এগিয়ে তারা প্রথমে দুটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটায়। বোমার শব্দ শুনে পাড়ার অন্যান্যরা ছুটোছুটি শুরু করলে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ত্রাসীরা হরিজন পল্লীর মন্দিরে বোমা হামলা চালায়।

ক্ষুদ্ধ বাসিন্দারা সবাই ঘর থেকে বের রাস্তার ওপর চলে আসে এবং বিক্ষোভ করতে থাকে। টায়ার আগুন ধরিয়ে ম্যানসেল বাহিনীর বিরুদ্ধে শ্লোগান দিয়ে   বিক্ষোভ করতে তাকে। সংবাদ পেয়ে কোতয়ালি থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। পরিস্থিতি শান্ত করার চেস্টা করে। মারপিট ও মন্দিরে হামলার ঘটনায় হরিজন সদস্যরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এবং বিক্ষোভ করতে করতে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যান। সেখানে কয়েকদফা বিক্ষোভ করে তারা হরিজন পল্লীর সামনে রাস্তার ওপর জড়ো হয়।

আরো পড়ুন>> বাংলাদেশে প্রথম নারী মেজর জেনারেল সুসানে গীতি

বিকাল চারটার দিকে যশোর কোতয়ালি থানার ওসি অপূর্ভ হাসান ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের আশ্বাস দিলে তারা রাস্তা ছেড়ে দেয়।

এ ব্যাপারে অপূর্ব হাসানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি স্বাধীন আলোকে বলেন, পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক। দোষীদের আটকের জন্য পুলিশ অভিযানে আছে।

হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা অভিযোগে জানান, শীর্ষ সন্ত্রাসী ম্যানসেল দীর্ঘদিন ধরে স্টেশন এলাকায় মাদক ব্যবসা করে। ওই মাদক ব্যবসা না করলে তাদেরকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয় এবং মামলা দিয়ে নানা ভাবে হয়রানি করে।

ম্যানসেল বাহিনী শুধু হরিজন পল্লীতে নয়, স্টেশন এলাকার সব জায়গায় মাদক ব্যবসা করাচ্ছে। তাদের এ ব্যবসা না করলে তাদেরকে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেয় এবং মাদকসহ একাধিক মামলায় জড়িয়ে দেয়। তারা ম্যানসেল বাহিনীকে আটক করে দৃষ্টান্ত শাস্তি দাবি করেছেন।

স্বাআলো/এম