শিরোনাম :
জাতীয় কবি কাজী নজরুলের ১২০ তম জন্মবার্ষিকী আপনার জন্য আজকের রাশিফল পুত্রবধূর নির্যাতন সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিলেন বৃদ্ধ মোবাইল চার্জার মুখে দেয়ায় শিশুর মৃত্যু দেব-মিমি-নুসরাতদের জয় নিয়ে যা বললেন সাকিব বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় ইফতার মাহফিল হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু ভূমধ্যসাগর থেকে ১৪ বাংলাদেশিসহ ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার যশোর জেলা পরিষদের ইফতার মাহফিল ব্র্যাক ব্যাংকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে ৯৬৮০ নিয়োগ ভারতে কোচিং সেন্টারে আগুন, ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৩৮ রান সংগ্রহ দ. আফ্রিকার মোদির রাষ্ট্রে আগুন, নিহত ১৫ ২৬২ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে আফগানিস্তান নিষিদ্ধ ৫২ পণ্য বন্ধে ঝালকাঠিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ব্রিটিশের প্রথম মুসলিম প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সাজিদ জাভিদ অভিযান চালিয়ে অপরিপক্ক ৫০ মণ আম ধ্বংস স্ত্রীকে নকল দিতে গিয়ে এএসআই কারাগারে হবিগঞ্জে পৃথক বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু

টাঙ্গাইলে মসজিদে দু’গ্রুপের দ্বন্দ্ব, প্রধান ফটকে তালা!

দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি

জেলা প্রতিনিধি, টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মসজিদে তাবলীগ-জামাতের দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও বেডিংসহ আসবাবপত্র ফেলে দিয়ে মসজিদের গেটে তালা লাগানোর ঘটনা ঘটেছে। আজ বুধবার (১৫ মে) সকালে উপজেলার বেতডোবা বায়তুল করিম কোর্ট জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় মুসল্লীরা জানান, বিশ্ব মারকাজ দিল্লি নিজামউদ্দিন (ছাদ) অনুসারী ও মাওলানা জুবায়ের হোসেন ওলামা পরিষদ অনুসারী দু’গ্রুপের মধ্যে মসজিদে অবস্থান করা নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতি ও বেডিং আসবাবপত্র ফেলে দেয়া হয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। দুই গ্রুপের হাতাহাতির ঘটনায় কালিহাতীতে উত্তেজনা বিরাজ করলে ছাদ গ্রুপের অনুসারীরা কালিহাতী থানায় গোলঘরে অবস্থান নেয়।

বিশ্ব মারকাজ দিল্লি নিজামউদ্দিন ছাদ গ্রুপের অনুসারী হুমায়ন বাঙ্গাল জানান, মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার বায়তুল করিম কোর্ট জামে মসজিদে প্রবেশ করার সময় দুষ্ট প্রকৃতির কয়েকজন লোক বাঁধা দেয়। বুধবার সকালে কয়েকজন লোক এসে আমাদের তাবলীগ জামাতে সাথীদের মারধর করে বেডিং ও আসবাবপত্র মসজিদ থেকে বাহিরে ফেলে দেয়।

আরো পড়ুন >>>রোগীর মাকে ডাক্তারের কুপ্রস্তাব, কক্ষে ডেকে অশালীন আচরণ

মাওলানা জুবায়ের হোসেন অনুসারী ওলামা পরিষদের থানা সূরার সাথী মোখলেছুর রহমান মারধরের বিষয়ে অস্বীকার করে বলেন, ছাদ গ্রুপ মঙ্গলবার মসজিদে প্রবেশ করেন। পর্চায় কালিহাতী না থাকায় তাদের চলে যেতে বলা হয়। চলে যেতে অস্বীকার করায় তাদের বেডিং ও আসবাবপত্র বাহির করে দেয় স্থানীয় মুসল্লীরা।

কালিহাতী থানার ওসি মীর মোশারফ হোসেন এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দু’গ্রুপে মসজিদে থাকা নিয়ে তর্কবিতর্ক ও হতাহাতির ঘটনা ঘটলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্বাআলো/এইসএম