শিরোনাম :
পঞ্চগড়সহ ৪ জেলার পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যায় কমেছে ১০৬ জন ইলিশ ধরায় ১৩ জনকে ৭ দিনের কারাদণ্ড দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রশ্ন রয়েছে ১০৮৪টি কাঙ্খিত মান অর্জন সাপেক্ষে পর্যায়ক্রমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে : শিক্ষামন্ত্রী চেয়ারম্যানের গুলিতে কৃষক নিহত শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে বৃদ্ধের কারাদণ্ড বিএনপির নেতা জাহিদ শপথ নেয়ায় ভোটাররা আনন্দিত বরগুনায় উপজেলা চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ সরকারি চাকরিতে আপাতত বয়সসীমা ৩৫ হচ্ছে না আগামী ১০ মে ১৬ জেলায় প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা হাজী সরদার মর্ত্তুজ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন টিসিবির পণ্য উত্তোলন করলেও গাইবান্ধায় শুরু হয়নি বিক্রি ওসির ফেসবুক আইডি হ্যাকড ইবিতে চট্টগ্রাম সমিতির বিদায় ও নবীণ বরণ পিরোজপুরে উপজেলা চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ করার প্রস্তাব নুসরাত হত্যা মামলায় শাকিল গ্রেপ্তার স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক কারাগারে নুসরাত হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি ‘রমজানে রংপুর বিভাগকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হবে’ ধর্মঘটকে পুঁজি করে অটোর ভাড়া দ্বিগুণ ইউনিসেফের ‘শিশু অধিকার’ প্রতিনিধি হলেন মিরাজ পরীক্ষা কেন্দ্রে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রদর্শক কারাগারে বখাটের হাত থেকে রক্ষা পেতে শিক্ষকের সংবাদ সম্মেলন

স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

জেলা প্রতিনিধি, বরগুনা: বরগুনার আমতলীতে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামী আমিনুর মাতুব্বরকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল।

রায় ঘোষণার সময় আসামি ট্রাইব্যুনালে উপস্থিত ছিলেন।বুধবার দুপুরে ওই ট্রাইব্যুনালের বিচারক  হাফিজুর রহমান এ রায় দেন।দন্ডপ্রাপ্ত আসামি আমিনুর মাতুব্বর আমতলী উপজেলার তারিকাটা গ্রামের মুজাফ্ফর মাতুব্বরের ছেলে। অপর আসামি সখিনা বেগমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

জানা যায়, ২০০৬ সালের ১৯ মার্চ আমতলী থানায় অভিযোগ দাখিল দেন মামলার বাদী হোসনে আরা বেগম। এ ঘটনার দুই মাস আগে তার মেয়ে শামসুন্নাহার মুক্তার সঙ্গে আমিনুরের বিয়ে হয়। বিয়ের পর আমিনুর মুক্তার কাছে ২০ হাজার টাকা যৌতুক দাবি করে নির্যাতন করেন। মুক্তা যৌতুক দিতে অস্বীকার করলে ২০০৬ সালের ১৮ মার্চ রাত ১১টায় মুক্তাকে মারধর করা হয়। পরে মুক্তাকে গলাটিপে হত্যা করে আমিনুর।এরপর মুক্তার মরদেহ গোপন করার জন্য বাড়ির দক্ষিন পাশে খালে ফেলে দেওয়া হয়। এসময় আসামিরা পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় রফেজ ও আবদুল হাই চৌকিদার আমিনুরকে আটক করে আমতলী থানায় সোর্পদ করে। পরের দিন বাদী পাঁচজনকে আসামি করে আমতলী থানায় মামলা করেন।

আমতলী থানার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ২০০৬ সালের ৯ এপ্রিল আমিনুর ও তার মা সখিনা বেগমের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল।আসামি পক্ষে ছিলেন কামরুল আহসান মহারাজ।

স্বাআলো/এসএ