শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা স্বাস্থ্যসেবায় ৫০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে চার সংস্থা প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ প্রস্তুতি অস্থায়ী কর্মপরিষদের দুর্নাম ঘোচাতে বাকসু নির্বাচন দাবি কাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক বিয়ের পিঁড়িতে বসতে যাচ্ছেন শ্রদ্ধা সঙ্গে রোহান দীর্ঘ দিনের প্রেমিকাকে বিয়ে করছেন মিরাজ ৮ম স্কেলে বেতনসহ ১০ দফা দাবি প্রাথমিক শিক্ষকদের প্রথম দিন থেকেই আইপিএলে থাকছেন সাকিব মাগুরায় আন্তর্জাতিক বর্ণ বৈষম্য বিলোপ দিবস পালিত দাবি আদায়ে খুলনার শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ বিএনপি সব ঘটনায় উস্কানি দেয়ার চেষ্টা করে: হানিফ খুলনার রূপসায় ট্রলি চাপায় শিশু নিহত এইচএসসি পরীক্ষার্থী হৃদয় নিহত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা এবার তিন সেনা সদস্য খুন সহকর্মীর হাতে নিউজিল্যান্ডে সব ধরনের আধা-স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধের ঘোষণা ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করার উপায় কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত আজকের খেলা আগামীকাল মোস্তাফিজের বিয়ে সুপ্রভাত-জাবালে নূর বাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আজ পদ্মা সেতুর নবম স্প্যান বসছে ২১ মার্চ দিনটি কেমন যাবে নির্বাচনী প্রচারণা শেষে প্রার্থী ফেরার পর শংকরপুরে বোমাবাজি চাকসু নির্বাচনে বৃহস্পতিবার কমিটি গঠন

ঠাকুরগাওয়ে আবারো ৩ জন নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত

নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত

জেলা প্রতিনিধি, ঠাকুরগাঁও  : ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে নিপাহ ভাইরাসে আক্রন্ত হয়ে একই পরিবারের পাঁচজন জন নিহতের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো একই রোগে অন্য একটি পরিবারের ৩ জন আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এটি নিপাহ ভাইরাস কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। তবে এটি ‘এনকে ফ্লাইটিস’ রোগ হতে পারে বলে ধারণা করছেন চিকিৎসকরা।

আক্রান্ত দুলালি বেগম বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়পলাশবাড়ি ইউনিয়নের বাদামবাড়ি উজিরপুর গ্রামের নাসিরুলের স্ত্রী ও তার দুই শিশু সন্তান সিয়াম (৭) এবং মিতু (৫)।  বৃহস্পতিবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে তারা চিকিৎসা নিতে আসেন। এসময় আক্রান্তদের সাময়িক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আক্রান্ত দুলালি জানান, বুধবার রাতে তার শরীর দুর্বল হয়ে পড়লে বাড়িতে হাটা চলা করতে পারছিলেন না তিনি। পরদিন বৃহস্পতিবার সকালে ছোট মেয়ে মিতু বেশ কয়েক বার বমি করলে তার শরীরে জ্বর হয়। এছাড়াও বড় ছেলে সিয়ামের শরীরে জ্বর আসে এবং তার শরীরে ব্যথা অনুভব হলে সেও অনেক দুর্বল হয়ে পড়ে। এসময় উপায় না পেয়ে তারা ৩ জনই স্থানীয় বালিয়াডাঙ্গী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসেন। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদের ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে রেফার করেন। ঠাকুরগাঁওয়ে আসার পর তাদের সাময়িক চিকিৎসা দিয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

আরো পড়ুন>> ঠাকুরগাঁওয়ে একই পরিবারের পাঁচ জনের মৃত্যু ‘নিপাহ ভাইরাসে’

আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. সুব্রত কুমার সেন বলেন, যেহেতু কিছুদিন পূর্বে বালিয়াডাঙ্গী এলাকায় নিপাহ ভাইরাসের সংক্রামনের ঘটনা ঘটেছিলো। তাই ঝুঁকি ও উন্নত চিকিৎসার কথা বিবেচনা করে আক্রান্তদের রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এবিষয়ে ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা: আবু খায়রুল কবির জানান, আক্রান্ত রোগীরা নিপাহ ভাইরাসের আক্রান্ত কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে তেমন অত্যাধুনিক মেশিন ও যন্ত্রপাতি নেই। তাই এবিষয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকদের সাথে পরামর্শ করে আক্রান্তদের রংপুরে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকা রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রক ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকদের সাথেও কথা বলা হয়েছে। তারা রোগটি সনাক্ত করার জন্য শুক্রবার রংপুরে আসবেন বলে জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁওয়ে ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত মাত্র ১৫ দিনের ব্যবধানে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যুর পর কারণ অনুসন্ধানে ঢাকা ও রাজশাহীর থেকে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রক ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকদের তদন্ত টিম আক্রান্ত এলাকায় তদন্ত করেন। তদন্ত শেষে তারা ঢাকায় ফিরে গিয়ে ৩ মার্চ সংশ্লিষ্ট বিভাগে তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। প্রতিবেদনে সর্বশেষ মৃত ব্যক্তির শরীরে নিপাহ ভাইরাসের উপস্থিতি ও উপসর্গ পাওয়া যায় নিশ্চিত করেছিলেন তদন্ত টিম।

স্বাআলো/এম